fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

প্রশাসনকে শেষ সম্বল রক্ষার আর্জি, জলঢাকা নদীর গর্ভে চলে যাচ্ছে চাষের জমি

বিদ্যুৎ কান্তি বর্মন, ঘোকসাডাঙ্গা: মাথাভাঙ্গা ২ নং ব্লকের ফুলবাড়ি অঞ্চলের পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে জলঢাকা নদী। বাঁধের অভাবে দিনের পর দিন নদীর গর্ভে চলে যাচ্ছে চাষের জমি।কপালে চিন্তার ভাঁজ পরছে এলাকার কৃষকদের। নদী ভাঙন রোধ করা না গেলে শেষ সম্বল হারানোর আশঙ্কা করছেন অনেক কৃষকেরা।তাই তারা চাইছেন জলঢাকা নদী ভাঙ্গন রোধ করার ব্যবস্থা গ্রহণ করুক প্রশাসন।ফুলবাড়ী অঞ্চলের খারিজা ক্ষেতী সংলগ্ন জলঢাকা নদীর চরে কয়েকশো বিঘা চাষের জমি রয়েছে। সেখানে চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে এলাকার কয়েকশো পরিবার।পরিবার গুলির একমাত্র সম্বল সেই চাষের জমি।

 

প্রতি বছর বর্ষায় এলাকার কৃষকদের চাষযোগ্য জমি নদীর গর্ভে চলে যাচ্ছে। চলতি বর্ষাতেও নদী ভাঙন ব্যাপক আকার নিয়েছে। নদীগর্ভে চলে গিয়েছে কয়েকশো বিঘা চাষের জমি।এই মুহূর্তে নদী ভাঙ্গন রোধ করা না গেলে সম্বল হারানোর আশঙ্কা করছেন এলাকার কৃষকরা।এলাকাবাসীদের অভিযোগ, আমরা বেশ কয়েকবার প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়েছি, কিন্তু প্রশাসন কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।এলাকার বাসিন্দা আবেদ আলি, হোসেন আলি, আইজুল মিঞা প্রমুখরা জানিয়েছেন, এলাকার প্রায় ১৫০ টি পরিবার এখানকার চাষের জমির উপর নির্ভর করে। তাদের একমাত্র সম্বল এই চাষের জমি।এখানে প্রচুর পরিমাণে কলা ও আলু ,পাট ও টমেটো চাষ হয়।এবছর নদী গ্রাস করছে অনেকের কলাবাগান ও পাটক্ষেত। এই মুহূর্তে নদী ভাঙন রোধ করা না গেলে আমারা সব হারিয়ে পথে বসব।

 

এ বিষয়ে ফুলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান ধনঞ্জয় অধিকারী জানান, বিষয়টি খোজ নিয়ে দেখা হচ্ছে। অপর দিকে মাথাভাঙা 2 নং ব্লকের বিডিও রজত রঞ্জন দাস জানান বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close