fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিশ্বের সফলতম রাষ্ট্রনায়কের স্বীকৃতি নরেন্দ্র মোদির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিশ্বের সফলতম রাষ্ট্রনায়কের স্বীকৃতি পেলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদির পর দ্বিতীয় সেরা রেটিং মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি কোম্পানি ‘মর্নিং কনসাল্ট’-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির তুলনায় ভারত করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা অতি দ্রুত করছে। এই ‘মর্নিং কনসাল্ট’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি মার্কেট রিসার্চ কোম্পানি।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও মার্কিন প্রেসিডেন্ট, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট জন মরিসন, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো, জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাঁকর, জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেকে রেটিং দেওয়া হয়েছে।

এ মাসে প্রধানমন্ত্রী মোদির অ্যাপ্রুভাল রেটিং বেড়ে হয়েছে ৬৮। করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় গোটা দুনিয়ার রাষ্ট্রনায়করা কীভাবে কাজ করেছে, তার ভিত্তিতেই এই রেটিং করা হয়েছিল। যেখানে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিগত ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত তাঁর অ্যাপ্রুভাল রেটিং সবচেয়ে বেশি।

উল্লেখ্য, এই বছরের শুরুতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের রেটিং ছিল মাইনাস ১০। সেটা এখন হয়েছে মাইনাস ৩।

বিগত কয়েকদিন আগে একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছিল যে, করোনা মোকাবিলায় শ্রেষ্ট দেশগুলির তালিকার শীর্ষে ছিল ভারত। করোনা মহামারী পাঁচটি সবচেয়ে উন্নত দেশে সবচেয়ে বেশী ক্ষতি করেছে। এরমধ্যে হল ইতালি, আমেরিকা, স্পেন, ফ্রান্স ও ব্রিটেন। এই দেশগুলি স্বাস্থ্য পরিষেবার দিক থেকে শীর্ষে থেকেও করোনাকে মোকাবিলা করতে অক্ষম হয়েছে। কিন্তু ভারত অতি দ্রূত করোনা মোকাবিলা করতে সক্ষম হয়েছে।

এই সাফল্যের জন্য উন্নত স্বাস্থ্য ব্যবস্থা, একটি দেশের দূরত্ব, জনসংখ্যার ঘনত্ব এবং নেতৃত্বের জন্য বিভিন্ন কারণ চিহ্নিত করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

স্বাস্থ্য ব্যবস্থা করোনা মোকাবিলায় একটি শক্তিশালী প্রতিরোধ সেটা বলতে অপেক্ষা রাখে না। আরও একটি ভালো পদক্ষেপ হল দেশের রাজনৈতিক ব্যবস্থা। যে দেশগুলি ভাল অবস্থায় আছে, সেগুলির প্রত্যেকের নেতারা তাদের দেশগুলিকে মহামারী থেকে রক্ষা করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন।
ভারত এদের মধ্যে সবচেয়ে ভাল কাজ করেছে করোনা মোকাবিলায়। যেমন,
বিদেশিদের এদেশে আসার বিষয়ে ভারত কড়া হয়েছে।

লকডাউন। ঠিক সময় মতো দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি বারবার দেশবাসীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন তিনি। এতে দেশবাসী মানসিকভাবে আরও শক্ত হয়েছেন।

শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় সরকার নয়, করোনা মোকাবিলায় মাঠে নেমে পড়েছেন প্রতিটা রাজ্যের প্রশাসন। ‌ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আলাদা আলাদা রাজনৈতিক দল শাসন করলেও করোনাকে নাশ করতে সন রাজনৈতিক দল একসঙ্গে কাজ করেছে।

আরোগ্য সেতুর মতন প্রযুক্তি ব্যবহার করে করোনাকে আটকে দিতে চেয়েছে।

নতুন চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়েছে। কখনও ম্যালেরিয়া, সোয়াইন ফ্লু –এর ওষুধ ব্যবহার করেছে রোগ প্রতিরোধে।

গরিবমানুষের হাতে নগদ অর্থ পৌঁছে দিয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য ব্যবস্থা করেছে।

Related Articles

Back to top button
Close