fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

স্বাস্থ্যভবনে ২০ জন করোনা আক্রান্ত, রাজ্যে ফের মৃত্যুর রেকর্ড! নতুন আক্রান্ত ৮৫০, মৃত ২৫, সুস্থ ৫৫৫

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: করোনা সংক্রমণ এবার থাবা বসাল স্বাস্থ্য ভবনের অন্দরে। সূত্রের খবর, করোনা পরিস্থিতির ওপর নজর রাখায় নিযুক্ত দুই সেলের মোট ২০ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনা সংক্রামিত হয়েছেন, যাদের মধ্যে রয়েছেন বেশ কয়েকজন স্বাস্থ্য আধিকারিকও। তাদের সংস্পর্শে আসা সকলকেই কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে, সোমবারের তুলনায় রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা কমলেও ফের বাড়ল মৃত্যুর সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত এই মৃত্যুর সংখ্যা সর্বোচ্চ বলে মত স্বাস্থ্য আধিকারিকদের। সোমবার প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫০ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৫ জনের, সুস্থ হয়েছেন ৫৫৫ জন। এর মধ্যে কলকাতাতেই রেকর্ড সংক্রমণ ২৯১ জনের, মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। একই সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রামিত ১৮৯ জন, মৃত্যু ৯ জনের।

বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় ৮৫০ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২৩৮৩৭ জনে। আরও ২৫ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৮০৪ জনের। এদিকে আরও ৫৫৫ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১৫৭৯০ জন।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে এদিনও ১৪৪ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ১১২ জন এবং হাওড়ায় ৭৪ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৬৫ সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার কমে দাঁড়িয়েছে ৬৬.২৪ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৭২৪৩ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ২৭০ জন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫২ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৫৬২১৩৭ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১০১৩০ জনের। রাজ্যের ৭৯ টি করোনা হাসপাতাল, ২৬ টি সরকারি এবং ৫৩ টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৬০৭ টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫ টি। তার ২৬.৫৬ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২ টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৫২৯৪ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৯৯৩৩৮ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৩৮৬১৪ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ২৯৮৮১০ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ২৪৭৪ টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ১১২৪১ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৬০৫৩৩ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬ টি সেফ হোমে ৬৯০৮ টি বেড রয়েছে এবং তাতে ৩১১ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ২৯১ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৭৬৮০ জনের। এদিন কলকাতায় আরও মাত্র ১০ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৪৩৮ জনের। এছাড়া এদিন উত্তর ২৪ পরগনায় ৯ জন এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৩ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে ১ জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ১৮৯ জন, হাওড়ায় ৭৪ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৭০ জন, মালদায় ৫০ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। উত্তরবঙ্গের কালিম্পং এবং দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম ছাড়া এদিন সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

মোট আক্রান্ত ২৩৮৩৭ জন
মোট মৃত ৮০৪ জন
মোট সুস্থ ১৫৭৯০ জন

Related Articles

Back to top button
Close