fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ক্ষতিগ্রস্ত পাইপলাইন, পানীয় জল সরবরাহের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক, দাবি বালিচকবাসীর  

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর:  পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বালিচকে এই মুহূর্তে জোর কদমে চলছে উড়ালপুল নির্মাণের কাজ। দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণে স্বভাবতই খুশি পশ্চিম মেদিনীপুরের বালিচক তথা গোটা ডেবরাবাসী। অপরদিকে এই উড়ালপুল নির্মাণকার্য্যে নির্মাণ সংস্থার আধিকারিকদের গাফিলতিতে চরম অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে এলাকাবাসীদের। বালিচক উড়ালপুল নির্মাণের জন্য রাস্তার ভিত বা থাম্ব, মাটি ড্রেসিং সহ অন্যান্য কাজের সময় অলক্ষ্যে যে পাম্প হাউস রয়েছে তার পাইপলাইন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

পানীয় জল সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে এলাকায় ফলে এলাকার বেশ কিছু মানুষ অসুবিধায় পড়েছেন। এ বিষয়ে ‘বালিচক স্টেশন উন্নয়ন কমিটির’ সম্পাদক-কিংকর অধিকারী জানান “আমরা কমিটির পক্ষ থেকে নির্মাণকার্য শুরুর আগে থেকেই দাবি জানিয়েছিলাম যে পানীয় জল সরবরাহের ক্ষেত্রে শুরু থেকেই বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য। কিন্তু সেই আবেদনে কর্ণপাত করা হয়নি। তাই এই দুর্ভোগ। প্রশাসনের কাছে আমাদের অনুরোধ, এই অবস্থায় যেসব এলাকায় মানুষ পানীয় জলের অভাবে কষ্টের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন তাঁদের জন্য প্রশাসনের তরফ থেকে সাময়িকভাবে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

একথা ঠিক উড়ালপুল নির্মাণের জন্য সাময়িকভাবে কিছু অসুবিধা তো হবেই, সেই অসুবিধা সহজে মেনেও নিয়েছেনএলাকাবাসী , কিন্তু পানীয় জলের ব্যাপারটা আন্তরিকতার সহিত নির্মাণকারী সংস্থা বা প্রশাসনকে ভেবে দেখা প্রয়োজন। কিছু জায়গায় অল্প স্বল্প জল যাচ্ছে,আবার কিছু জায়গায় তাও যাচ্ছে না। পাইপ ফেটে যাওয়ার ফলে জলের প্রেশার কমে গিয়েছে। আমরা ‘বালিচক স্টেশন উন্নয়ন কমিটির’ পক্ষ থেকে এই বিষয় নিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে সমস্যা মেটানোর বিনীত আবেদন করেছি। ওনারা মঙ্গলবার মেরামত করবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু স্থায়ী মেরামতে এই সমস্যা কতটা মিটবে তা নিয়ে নিয়ে একটা সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে? এখনো পর্যন্ত পাম্প হাউজটি সরানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। পাম্প হাউজটি সরিয়ে নিয়ে গিয়ে অন্যত্র নতুন করে যতক্ষণ না বসানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে, ততদিন এই ভোগান্তি চলতেই থাকবে বলে আমার মনে হয়।”

Related Articles

Back to top button
Close