fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা মোকাবিলায় ‘মমতাদি’ ব্যর্থ, ২১-এ তৃণমূলের বিদায় নিশ্চিত: রাজু বিস্ত

বিমান পরিষেবা চালু হতেই নিজের এলাকায় ফিরলেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি:  দীর্ঘ প্রায় দু’মাস বাদে নিজের নির্বাচনী এলাকায় ফিরলেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ বিজেপি-র রাজু বিস্ত। বুধবার বিমান চলাচল শুরু হতেই তিনি দিল্লি থেকে আসেন।

 

এদিন দুপুরে বাগডোগরা বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান, করোন মোকাবিলায় রাজ্যের তৃণমূল সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ। আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ব্যর্থতার জন্যই রাজ্যে করোনায় মৃত্যর হার দেশের মধ্যে সবথেকে বেশি। তিনি বলেন, ‘ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার পাশাপাশি আমফানে রাজ্য সরকারের যা ভূমিকা তাতে ২০২১ এ রাজ্য থেকে তৃণমূলের বিদায় নিশ্চিত।’

 

 

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের ব্যর্থতার মাঝেও করোনার বিরুদ্ধে যারা সামনে থেকে লড়াই করছেন সেই সব ডাক্তার, নার্স, আশা কর্মী, বিদ্যুৎ ও দমকল কর্মী সকলকেই তিনি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে দার্জিলিংয়ের সাংসদ কেন দিল্লীতে বসে রয়েছেন? এ নিয়ে  গত দু’ মাসে বিভিন্ন সময়ে তৃণমূল, সিপিএম প্রশ্ন তুলেছে। শিলিগুড়িতে সাংসদ নিখোঁজ বলে রাজু বিস্তের ছবি সহ পোস্টারও পড়েছে। এ প্রসঙ্গে এদিন দার্জিলিংয়ের সাংসদ বলেন, ‘ শিলিগুড়িতে আমার ছবি দিয়ে পোস্টার মারাটা তৃণমূলের নাটক। আগেও বলেছি, আবারও বলছি, সমাজ ও এখ্নরকার মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে দিল্লিতে থেকেও আমি অনেক কাজ করেছি। এখন সামনে থেকো করিো। তবে করোনার প্রোটোকোল আমাকেও মেনে চলতে হবে তাই সকলের জন্য যে নিয়ম আমিও সেই নিয়ম মেনে ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টাইনে থাকবো। কিছুদিন শিলিগুড়ি ও কিছুদিন দার্জিলিংয়ের বাড়িতে কাটাবো।’

 

 

এক প্রশ্নোত্তরে সাংসদ বলেন, ‘ আমার না-থাকা নিয়ে তৃণমূল যে প্রশ্ন তুলেছিল তাতে মুখ্যমন্ত্রী ও তার প্রশাসনের কাছে আমার পাল্টা প্রশ্ন, বিজেপির সাংসদদের প্রতি প্রশাসন কেন নিয়ম বিরুদ্ধ কাজ করছে। জন বার্লা,জয়ন্ত রায়দের কেন বাড়িতে আটকে রাখা হচ্ছে। বিজেপি-র অন্যান্য সাংসদদের      সঙ্গেও একই ব্যবহার করছে এজ্যের প্রশাসন। জনপ্রতিনিধি মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করতে না দিয়ে রাজ্য সরকার ক্রাইম করছে।’ এদিকে শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান  অশোক ভট্টাচার্য বলেন, ‘ আসার সুযোগ ছিল, কিন্তু আসেননি। তাই দু’ মাস পর এসে বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত এখন মাতব্বর করবেন সেটা আমরা মেনে নেব না।’

Related Articles

Back to top button
Close