fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সেতু নির্মান করতে গিয়ে মৃত্যু শ্রমিকের, মৃতদেহ তুলতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পুলিশ

মিলন পণ্ডা, খেজুরি (পূর্ব মেদিনীপুর): সেতু নির্মান করতে গিয়ে মৃত্যু হল শ্রমিকের। মৃতদেহ তুলতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়ল পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দাদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় পুলিশকে। মৃতদেহ আটকে রেখে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ চললো সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত। ঘটনার পর তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত ওই পঞ্চায়েতের প্রধানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হলেন এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা থেকে বিজেপি নেতৃত্বরা।

এই দুর্ঘটনার সেতু নির্মাণকারী ঠিকাদার সহ কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয়। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে খেজুরি থানা বিশাল পুলিশবাহিনী। পুলিশকে ঘিরে এলাকায় আরও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।  পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে স্থানীয় বাসিন্দা ও বিজেপি নেতৃত্বরা। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার খেজুরি থানার হলুদবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের দেখালি জলপাই পাইপবাড় গ্রামে। পুলিশ জানিয়েছে মৃত নির্মাণ কর্মীর নাম মাধব মান্না (৩৭) । তার বাড়ি খেজুরি থানা চৌদ্দচুল্লি গ্রামে।

 

স্থানীয় বাসিন্দা ও বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে তৈরি হচ্ছিল খেজুরি হলুদবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনে দেখালি জলপাই গ্রামের পাইকপাড়া সেতু মেরামতির কাজ। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সেতুটির কাজ করার প্রতিবাদ করেছিল স্থানীয় বাসিন্দা থেকে বিজেপি নেতৃত্বরা। কিন্তু তাতে কোন কর্ণপাত করেননি ঠিকাদার থেকে এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তাপস প্রামাণিক। সেতুটি নির্মাণ করার সময় বৃহস্পতিবার সকালে আচমকাই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে সেটি। সেতুর নিচে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় নির্মাণ কর্মীর মাধবের।

 

জানা গেছে, খেজুরির পাইকপাড়ার মধ্যস্থলে সেতুটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থা পড়েছিল। সেতু মেরামতের জন্য স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধানকে জানালেও প্রথমে গ্রামবাসীরা কোনওভাবেই গুরুত্ব দেয়নি। সেতু মেরামতের দাবিতে গ্রামবাসীরা থেকে বিজেপি নেতৃত্বরা প্রধানের কাছে একাধিকবার দরবার হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তাপস প্রামাণিককে সেতু মেরামতি না হলে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দেন।

গ্রামবাসী ও বিজেপি নেতৃত্বের চাপে অবশেষে ভগ্নপ্রায় সেতুটি মেরামত করতে শুরু করে স্থানীয় পঞ্চায়েত। মৃত নির্মাণ কর্মীর মাধবের পরিবারের সুরক্ষার দাবি তুলে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসী থেকে বিজেপি নেতৃত্ব।

এলাকার বিজেপি নেতা শুভ্রাংশু দাস বলেন, ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তাপস প্রামাণিক একাধিক দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। খেজুরি থানার ওসি সত্যজিৎ চানক বলেন, প্রথমে মৃতদেহ তুলতে গেলে স্থানীয় বাসিন্দাদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়। অবশেষে স্থানীয় বাসিন্দাদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close