fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আর্থিক কারণে দিনহাটায় ১২টা’র পরিবর্তে দুপুর দুটো পর্যন্ত দোকানপাট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা, দিনহাটা: লকডাউনে দোকানপাট বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীদের আর্থিক অবস্থার কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন ব্যবসায়িক সংগঠনগুলো আলোচনার মধ্য দিয়ে দিনহাটায় বেলা ১২ টার পরিবর্তে দুপুর দুইটা পর্যন্ত দোকানপাট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়।

ইতিপূর্বে ব্যবসায়ীরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিয়ে সকাল আটটা থেকে বেলা বারোটা পর্যন্ত দোকান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এর ফলে এই সামান্য সময়ের জন্য বিকিকিনির ক্ষেত্রেও সমস্যায় পড়তে হচ্ছিল ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ের -ই। আর্থিকভাবে সমস্যায় পড়তে হয় বিভিন্ন স্তরের ব্যবসায়ীদের। একদিকে যখন করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলছে প্রত্যন্ত মহকুমা দিনহাটাতে তখন ব্যবসায়ীদের কথা ভেবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ব্যবসায়ীরা যাতে ব্যবসা করতে পারে সেই লক্ষ্যে সংগঠনগুলির সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানান অনেকেই। এই আবহের মধ্যেও রাজ্যের অন্যান্য স্থানের সাথে দিনহাটাতে ব্যবসায়ীরা বেলা ১২ টার পরিবর্তে বেলা দুইটা পর্যন্ত বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিল। বৃহস্পতিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বেও ব্যবসায়ীরা দিনহাটা পুরসভার প্রশাসক উদয়ন গুহ, দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্তর সঙ্গে আলোচনা করে তাদের দোকানপাট খোলা ও ভিড় রোধে বিভিন্নভাবে সিদ্ধান্ত নেন।

লকডাউনের পাশাপাশি দোকানপাট সহ বিভিন্ন বাজার খোলার ক্ষেত্রেও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। সেই অনুযায়ী দিনহাটা তে সকাল আটটা থেকে ১২ টা পর্যন্ত বিভিন্ন দোকানপাট খোলা থাকে।

বর্তমানে এই কঠিন পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীরাও দোকান খোলা ও বন্ধের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য ব্যবসায়ী সংগঠনগুলির কাছে আবেদন জানান। দিনহাটা মহকুমার দুইটি ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃত্বরা আলোচনার মধ্য দিয়ে দোকানপাট ১২ টার পরিবর্তে দুই ঘন্টা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন। সেই মত এদিন থেকেই দিনহাটা শহরের বিভিন্ন এলাকার দোকানপাট বেলা দুইটা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়।

দিনহাটা ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সম্পাদক উৎপলেন্দু রায় বলেন, দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে লকডাউনের ফলে দোকানপাট বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীদের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে।
এমতবস্থায় রাজ্যের অন্যান্য স্থানের দোকানপাট সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত খোলা রাখার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। পরিযায়ী শ্রমিকরা আসতে শুরু করায় দিনহাটায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় কিছুটা হলেও আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। কিন্তু ব্যবসায়ীদের আর্থিক অবস্থা কঠিন হয়ে পড়ায় তারা সকল ব্যবসায়ী সংগঠন আলোচনার মধ্য দিয়ে প্রশাসনের সাথে কথা বলে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান দুই ঘন্টা বেশি সময়ের জন্য খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

দিনহাটা মহকুমা ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক রানা গোস্বামী বলেন, ইতিপূর্বে তারা পুরো কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে চার ঘন্টার জন্য দোকানপাট খোলার সিদ্ধান্ত নেন। সে সময় সকাল আটটা থেকে বারোটা পর্যন্ত দোকানপাট খোলা থাকে।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যখন দিনহাটার মতো প্রত্যন্ত মহকুমায় বেড়ে চলছে কিছুটা হলেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লেও ব্যবসায়ীদের দোকানপাট মাত্র কয়েক ঘন্টা খোলা থাকায় তাদেরকে আর্থিকভাবে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তাই সব শ্রেণীর ব্যবসায়ীদের কথা মাথায় রেখে অতিরিক্ত দুই ঘন্টা এদিন থেকে দোকানপাট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়। পাশাপাশি ব্যবসায়ীরা যাতে ক্রেতাদের সাথে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মুখে মাস্ক পরে জিনিসপত্রে আদান প্রদান করেন তার জন্য সকলকে সচেতন করে দেওয়া হয়।

Related Articles

Back to top button
Close