fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কামারহাটিতে বিভিন্ন বিরোধী দল থেকে ৩০০ জন যোগদান করল বিজেপিতে

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: লকডাউনের মধ্যেই দলীয় কর্মসূচি পালন করে সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি করল উত্তর ২৪ পরগনার কামারহাটি বিজেপি নেতৃত্ব । রবিবার দুপুরে কামারহাটির রথতলা মোড়ে বিজেপির পার্টি অফিসে এসে ৩০০ জন বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মীরা বিজেপিতে যোগদান করেন । রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি রাজু বন্দোপাধ্যায়ের হাত ধরে ভিন দল থেকে আসা রাজনৈতিক কর্মীরা বিজেপিতে যোগ দেন । বিজেপি রাজ্য সহ সভাপতি রাজু বন্দোপাধ্যায় বলেন, “মূলত তৃণমূল কর্মীরা আজ বিজেপিতে নাম লেখালেন । এরফলে এই বেলঘরিয়া এবং কামারহাটি অঞ্চলে বিজেপির সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি ঘটল । রাজ্য সরকারের প্রবঞ্চনা ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়ে এই এলাকার এক সময়ের তৃণমূল কর্মীরা আজ ভারতীয় জনতা পার্টিতে এলো । দেশের প্রধানমন্ত্রী আমফান ঝড়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যে এসে ১ হাজার কোটি টাকা অনুদান মঞ্জুর করছে । এদিকে রাজ্য যে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষরা ২০ হাজার টাকা করে পেয়েছে তা নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে । বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সেই টাকা তৃণমূল কর্মীদের পকেটে গেছে । যাদের পাকা উন্নত বাসস্থান আছে তারাই ২০ হাজার টাকা পেল । আমফান ঝড়ে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা সেই সহায়তা পায় নি ।”

এদিকে রাজু বন্দোপাধ্যয়ের অভিযোগ অসত্য বলে উড়িয়ে দিয়েছেন কামারহাটি পুরসভার বর্তমান পৌর প্রশাসক তথা তৃণমূল নেতা গোপাল সাহা । তিনি বলেন, “আমি শুনলাম সরকারের জারি করা লক ডাউনের মধ্যে নিয়ম ভেঙে বিজেপি কর্মীরা দলীয় কর্মসূচি পালন করেছে । কে, কোন দলে, কেন, যোগদান করল ? সেসব জানার ইচ্ছা আমার নেই । আমি শুধু বলছি কামারহাটিতে তৃণমূল সুরক্ষিত আছে । কোন তৃণমূল কর্মী এক জন ও দল ছেড়ে বিজেপিতে যায় নি । তবে যারা সামাজিক দূরত্বে বজায় না রেখে কর্মসূচি পালন করে তারা মানুষের উপকার করতে পারে না । প্রশাসনকে বলব, যারা লকডাউনের নিয়মের তোয়াক্কা না করে এইসব কর্মসূচি পালন করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ।” এই প্রসঙ্গে পাল্টা কটাক্ষ করে রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি রাজু বন্দোপাধ্যায় বলেন, “রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নিজেই সামাজিক দূরত্ব না মেনে বাইরে বেরোচ্ছেন । আগে তিনি নিজে সাবধান হোন ।” কামারহাটি এলাকায় বিজেপিতে বিরোধী দলের কর্মীদের যোগদান বর্তমান পরিস্থিতিতে বিজেপিকে বাড়তি অক্সিজেন যোগাবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Related Articles

Back to top button
Close