fbpx
হেডলাইন

লকডাউনে খাবারের জন্য দৈনিক ৩০ টাকা দাবি, দিতে না পারায় বৃদ্ধ বাবাকে বাড়ি থেকে বের করল ছেলে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের জেরে অর্থনৈতিক টান পড়েছে সারা দেশজুড়ে। নেই কোনও আয়। এর মধ্যেই খাবারের জন্য দৈনিক ৩০ টাকা দাবি। দিতে না পারায় বৃদ্ধ বাবাকে বাড়ি থেকে বের করল গুণধর ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে। জানাগেছে, বৃদ্ধ বাবার নাম গঙ্গাধর সামন্ত। তিনি প্রতিদিন স্কুলের গেটের বাইরে আইসক্রিমের প্যাকেট কিংবা চকোলেট করতেন। কিন্তু করোনা যেন সবকিছুকে কেড়ে নিয়েছে। যখন চকোলেট, আইসক্রিম নিয়ে গঙ্গাধরবাবু স্কুলের বাইরে দাঁড়াতেন, যা আয় হত তা তুলে দিতেন ছেলের হাতে, রাতের খাবার বাড়িতেই হয়ে যেত। দুপুরটা কোনওদিন কপালে জুটত মিড ডে মিলের অর্ধেক, আবার কোনওদিন অনুষ্ঠানবাড়ির উচ্ছিষ্ট।

এইভাবে ভালোই চলছিল। কিন্তু বাধ সাধল লকডাউন। স্কুল বন্ধ হওয়ায় তাঁর আর রোজগার নেই। তাই বাড়ি থেকে বার করে দিয়েছে ছেলে। এখন মহিষাদল রাজবাড়ির দালানেই পড়ে থাকেন তিনি। ‘এখন কী খাচ্ছেন তবে?’ উত্তর এল, “ওই তো পাড়ার কত লোক রয়েছে, কেউ না কেউ ঠিক দিয়ে যাইতেছে। দিন কাইট্যা যাইতেছে।” এখনও ছেলের বিপক্ষে একটিও কথা নেই মুখে। তিনি তো বাবা!

আরও পড়ুন: সুন্দরবনে দুর্গতদের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্য শিবির

গঙ্গাধরবাবুর মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেছে। ছেলে বিয়ে করে সংসার পেতেছেন, তাঁর আয় রয়েছে। কিন্তু বাবাকে যদি বাড়িতে থাকতে হয়, তাহলে রোজ দিতে হবে ৩০ টাকা। তবেই একবেলার খাবার মিলবে।

কৌশিক পণ্ডা নামে এক প্রতিবেশী বললেন, “খারাপ লাগে, গঙ্গাধরবাবু খেটে গিয়েছেন সারাজীবন, এখনও খেটে যাচ্ছেন তবে ছেলেটাকে মানুষ করতে পারেননি। অমানুষই থেকে গেছে ছেলেটা!”

Related Articles

Back to top button
Close