fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কালনা মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন পৌরস্বাস্থ্যকর্মীদের

নিজস্ব সংবাদদাতা, কালনা: করোনা আবহে কাজ ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন সহ ডেপুটেশন জমা দিলেন কালনার পৌরস্বাস্থ্যকর্মীরা। সদ্য ছাঁটাই হওয়া পৌরস্বাস্থ্য কর্মীরা ডেপুটেশন দেওয়ার পর মহকুমাশাসক বিষয়টি দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বলে তারা জানান।

কালনা পৌরসভায় ডেঙ্গু সার্ভেতে সুপারভাইজার পদে ও স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্বে বহাল থাকা কর্মীদের অভিযোগ কোনো কিছু না জানিয়েই তাদের সদ্য ছাঁটাই করা হয়েছে।তাদের দাবি ২০১৬ সাল থেকে কাজ করছেন। তাই করোনা আবহে তাদের কাজ ফিরিয়ে দেওয়া হোক। মনিপ্রভা ভাদুরী, পিওকী পান্ডে, রুমা গোস্বামী, বিপাশা ব্যানার্জিরা বলেন, ‘আমরা ২০১৬ সাল থেকে কালনা পৌরসভায় ডেঙ্গুর সুপারভাইজার পদে বহাল আছি। আমরা সবাই প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত। এমনকি গত ৩০ শে জুন অনলাইনে প্রশিক্ষণও নিই। সিদ্ধান্ত হয় আমরা পুরানো স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে ডেঙ্গির কাজ শুরু করবো। এমনকি করোনা ভাইরাসে মানুষের সচেতনতা বাড়াতে এই স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করেছি। কিন্তু ৭ ই জুলাই সকলের অজ্ঞাতসারে পুরানো ৯ জন সুপার ভাইজার ও ৮৬ জন স্বেচ্ছাসেবককে বাদ দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত নয় নতুনদের নিয়োগ করে ডেঙ্গির কাজ শুরু করে দেওয়া হয়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন করোনা আবহে কোন কর্মীকে ছাঁটাই বা তার বেতন বন্ধ করা যাবেনা। তা সত্বেও কালনা পৌরসভার প্রশাসক আমাদের ছাঁটাই করে আমাদের কাজ কেড়েছেন। আমরা চাই আমাদের কাজ ফিরিয়ে দেওয়া হোক।’

যদিও কালনা পৌরসভার প্রশাসক দেবপ্রসাদ বাগ বলেন, ‘ওদের কোন নিয়োগপত্র নেই আর তা ছাড়া ঠিকমত কাজ করতেন না। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

Related Articles

Back to top button
Close