fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

খেজুরিতে বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ

মিলন পণ্ডা, খেজুরি: ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল পূর্ব মেদিনীপুর জেলাযর খেজুরি। এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও পরিবারের সদস্যদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ জানালে পুলিশ বিজেপি কর্মীকে আটক করে নিয়ে যায় বিজেপি নেতৃত্বদের দাবি। ঘটনার পর গোটা এলাকা ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। যদিও এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে শাসক দল। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় খেজুরি থানার আমজাদনগর এলাকায়। প্রতিবাদে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা রাস্তায় অবরোধ করে বিক্ষোভের সামিল হয়।

বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ, এলাকার বিজেপি কর্মী সোমপ্রকাশ মাইতির বাড়িতে দুপুরে আচমকা হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। বাড়ি ভাঙচুরের পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের বেধড়ক মারধর করা হয় বলে বিজেপির অভিযোগ। শুধু তাই নয় বাড়ি লুটপাট চালায় দুস্কৃতিকারীরা। ঘটনার পুলিশকে জানালে পুলিশ এসে এক বিজেপি কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এই ঘটনার পর বিজেপি কর্মী সমর্থকরা একজোট হয়ে খেজুরি বাঁশগড়া ও মিয়াঁমোড়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। বিক্ষোভের জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে খেজুরি থানা বিশাল পুলিশ বাহিনী। বিক্ষোভকারী দের বুঝিয়ে অবশেষে অবরোধ তুলে দেয় পুলিশ।

কাঁথি সাংগঠনীক জেলার বিজেপি সাধারণ সম্পাদক তাপস দলাই বলেন, একুশে জুলাই মমতা বন্দোপাধ্যায় প্রহসন দিবসের প্রতিফলন। বক্তব্য রাখার পরে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বিজেপি কর্মীদের বেছে বেছে বাড়িতে হামলা চালাচ্ছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করে বিজেপি কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। আটক কর্মীকে ছেড়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে আমরা অবরোধ তুলে নেই।

খেজুরি থানার ওসি সত্যজিৎ চানক বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বুঝিয়ে অবরোধে তুলে দেওয়া হয়েছে।পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কনিষ্ক পন্ডা বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক যোগ নেই। এটা সম্পূর্ণ পারিবারিক বিষয়। এই সব করেই বিজেপি প্রচারের আসার চেষ্টা করছে। পুলিশ তদন্ত করে প্রকৃত সত্য উদ্ঘাটন হবে।

Related Articles

Back to top button
Close