fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনার অবহের মধ্যেই ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে সচেতনতা প্রচার শুরু হল দিনহাটায়

সোম কর, দিনহাটা: করোনার থাবায় এদেশ সহ গোটা পৃথিবী জুড়ে মানুষ যখন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে সেই অবহের মধ্যেই ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে সচেতনতা প্রচার শুরু হল দিনহাটায়। শনিবার জাতীয় ডেঙ্গু দিবসে রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য দফতর ও দিনহাটা পুরসভার উদ্যোগে দিনটি পালন করা হয়। এদিন দিনহাটা পুরসভার পক্ষ থেকে পুরসভার স্বাস্থ্য কর্মীদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে পৌরসভার মেডিকেল অফিসার চিকিৎসক বিদ্যুৎ কমল সাহা, আধিকারিক অসিত বল ছাড়াও স্বাস্থ্যকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

এদিনের এই আলোচনা সভায় পুরো এলাকার বিভিন্ন বাড়িতে বাড়িতে ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে কি কি করতে হবে কিভাবে মানুষকে আরও বেশি করে সচেতন করতে হবে এবং মশক বাহিত রোগের হাত থেকে রক্ষা করতে বিভিন্ন রকম বিষয় তুলে ধরা হয়। এদিন স্বাস্থ্যকর্মীদের নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি পুরসভা চত্বরেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সচেতনতা রেলি বের হয়। এদিন এই রেলির সূচনা করেন পুরসভার চেয়ারম্যান বিধায়ক উদয়ন গুহ। এর আগে সচেতনতামূলক এই বৈঠকে পুরসভার মেডিকেল অফিসার বিদ্যুৎ কমল সাহা, আধিকারিক অসিত বল প্রমুখ করোনা মোকাবিলার পাশাপাশি ডেঙ্গু রোগ যাতে কোনোভাবেই ছড়িয়ে পড়তে না পারে তা নিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের নানাভাবে সচেতন করেন।

 

বাড়িতে সামান্যতম জমা জলে মশা জন্মায়। তাই খোলা পাত্রে জল জমতে না দেওয়া, মশারির মধ্যে ঘুমানো, নিজের বাড়ি ও এলাকার পরিবেশ সর্বদা জঞ্জালমুক্ত রাখা প্রভৃতি বিষয় মানুষের কাছে তুলে ধরতে ও এদিন স্বাস্থ্যকর্মীদের অবগত করেন মেডিক্যাল অফিসার বিদ্যুৎ কমল সাহা। রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের উদ্যোগে দিনহাটা পুরসভার ব্যবস্থাপনায় এদিনেই ডেঙ্গু প্রতিরোধে আলোচনা সভা ও রেলির মধ্যে দিয়ে জাতীয় ডেঙ্গু দিবস পালনের পাশাপাশি এই সচেতনতা কর্মসূচি চলবে বলেও পুরসভা সূত্রে জানা গেছে।

 

পুরসভার মেডিকেল অফিসার বিদ্যুৎ কমল সাহা জানান আজকে জাতীয় ডেঙ্গু দিবস। ডেঙ্গু প্রতিরোধে যে সচেতনতা দরকার তা নিয়ে পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে তুলে ধরা হয় পুর এলাকার বাসিন্দাদের আরো বেশি করে কিভাবে সচেতন করা যাবে।গত বছর যেভাবে কাজ হয়েছে তার ছাড়ো ভাল হবে যাতে কাজ হয় তা নিয়ে দিন তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মত বিনিময় করা হয়। গত বছরও দিনহাটা শহর এলাকা থেকে কোনরকম ডেঙ্গুর উৎপত্তি দেখা যায়নি। এবছরও যাতে সেই কাজ আরো সুন্দর ভাবে করা যায় এবং বাসিন্দাদের করোনা মোকাবিলায় আরও সচেতন করা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close