fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

ডেঙ্গু দমনে কয়েকটি নামী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলকে নোটিস পুরসভার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এবার পুরআইন প্রয়োগ করে শহরের বেশকিছু নামিদামি স্কুল এবং কারখানাকে নোটিশ দিতে চলেছে কলকাতা পুরসভা। অভিযুক্ত এই স্কুল ও কারখানা গুলির বিরুদ্ধে জমা জল পরিষ্কার না করার অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগীয় বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে পুর আইনের ৪৯৬ এবং ৪৯৭/১ ধারায় অভিযুক্ত স্কুলও কারখানাগুলোকে নোটিশ দেওয়া হবে।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ডেঙ্গু সেভাবে মাথাচাড়া দিতে না পারলেও বেশ কিছু এলাকায় ডেঙ্গু সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি কলকাতা পুরসভা কোনভাবেই চাইছে না এই করোনা আবহে ডেঙ্গু কে অগ্রাহ্য করতে। তাই বর্ষা শুরুর প্রথম থেকেই ডেঙ্গু জন্য উঠে পড়ে লেগেছে পুর ভবন। এই অবস্থায় পুরসভার কাছে অভিযোগ এসেছে, পূর্ব ও মধ্য কলকাতার বেশ কিছু নামী মাধ্যমের স্কুল কদিন বন্ধ থাকায় সেখানে জমা জলে এডিস মশা লার্ভা জন্মাচ্ছে। যা সংলগ্ন এলাকায় অন্যান্য বাসিন্দাদের কামড়ানোর ফলে ডেঙ্গুর সম্ভাবনা ছড়িয়ে পড়ছে।

অভিযোগ পাওয়ার পরেই পুরসভা সেই স্কুল গুলিকে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করার উদ্যোগ নেওয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছিল কিন্তু এই বিষয়ে ওই স্কুলগুলি কোনরকম উচ্চবাচ্য করেনি। ডেঙ্গু দমন করতে কোন রকম পদক্ষেপও নেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসক অতীন ঘোষ।

এর পরেই স্বাস্থ্যবিভাগের আধিকারিক, ওয়ার্ড কডিনেটর, ও পুরসভার পতঙ্গ বৃদ্ধির সঙ্গে বৈঠকে বসেন অতীন বাবু। সেখানে সিদ্ধান্ত হয় ওই স্কুল গুলিকে এবং একই অভিযোগে অভিযুক্ত বেশকিছু কারখানাকে পুর আইন অনুযায়ী নোটিশ দেওয়া হবে। পুরসভার জমা জল ও ডেঙ্গু মশার লার্ভা সরিয়ে দিতে যে পরিমাণ খরচ পুরসভার হবে সেই বিল অর্থসম্পত্তি কর এর সঙ্গে জুড়ে অভিযুক্ত ওই প্রতিষ্ঠানকে পাঠাবে পুরসভা।

এর পাশাপাশি পুরসভার নজর রয়েছে নীলরতন হাসপাতালের ভিতরে নির্মাণ কাজে। সেখানেও বৃষ্টির জল জমে দীর্ঘদিন ধরেই মশার লার্ভা জন্মাচ্ছে বলে অভিযোগ এসেছে পুরসভার কাছে। নীলরতন হাসপাতাল এর ওই এলাকা ছাড়াও দক্ষিণ কলকাতার  ৮, ৯ ও ১০ নম্বর বড় কয়েকটি ওয়ার্ড আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই পুরসভা ডেঙ্গু দমন অভিযানে নামবে বলে জানিয়েছেন অতীন বাবু।

Related Articles

Back to top button
Close