fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

প্রশাসনের শত প্রচেষ্টাতেও খড়্গপুরে রাবণ দহনে উধাও সচেতনতা… শেষমেশ বধ হল রাবণ!

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়্গপুর শহরের ঐতিহ্যমন্ডিত অনুষ্ঠান রাবণ দহন বা রাবণ বধ, লৌকিক ভাষায় যা রাবণ পোড়া নামেই পরিচিত। বিজয়া দশমীর দিনে এই অনুষ্ঠান সাড়ম্বরে উদযাপন হয়ে আসছে। এ বছরও বিশেষ করে এই করোনা আবহেও এই উৎসবের কোনও খামতি ছিল না। খড়্গপুর শহরের নিউ সেটেলমেন্ট রাবণ পোড়া মাঠে দশেরা উৎসব কমিটির আয়োজনে হাজার, হাজার মানুষের ভিড়েই অনুষ্ঠানটি উদযাপিত হল।

আরও পড়ুন:চলে গেলেন বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা আনিসুর রহমান

যদিও এই অনুষ্ঠানটি প্রশাসনের তরফ থেকে সচেতনতার জন্য সমস্ত রকম উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। প্রশাসনের তরফ থেকে সকাল থেকেই এই অনুষ্ঠানে সাজো সাজো রব ছিল চোখে পড়ার মতো। বিধায়ক প্রদীপ সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী সামসুদ্দিন আহমেদ, মহকুমা শাসক বৈভব চৌধুরী, মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সুকোমল কান্তি দাসের নেতৃত্বে নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং দূরত্ব বজায় রেখে রাবণ দহন অনুষ্ঠান দর্শনের ব্যবস্থা দফায় দফায় খতিয়ে দেখা হয়েছে। অন্তত হাজার খানেক মানুষ যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এই আকর্ষণীয় অনুষ্ঠানটি উপভোগ করতে পারে সেই ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

তবে শেষমেষ মানুষের আবেগের কাছে হার মেনে সমস্ত দূরত্ব আর স্বাস্থ্য বিধি ভেঙে চুরমার হয়ে গেলো! কয়েক হাজার মানুষের সমাগমে স্বাস্থ্য সচেতনতা শিকেয় উঠল। এবারও প্রায় ৫০ফুট উচ্চতার রাবণ তৈরি করা হয়েছিল, রাবণে অগ্নি সংযোগ করেন পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসক ড: রশ্মি কমল।

Related Articles

Back to top button
Close