fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

‘দিদি আপনি উত্তরবঙ্গের মানুষের জন্য কিছু করেননি’, ইসলামপুরের এক অনুষ্ঠানে মমতাকে কটাক্ষ দেবশ্রী’র

দীপঙ্কর দে, ইসলামপুর :  “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শেষবেলায় নাটক করছেন, আপনার ওই নাটক আর কেউ দেখবেন না, এবার সবাই মোদিজীকে দেখবেন” ইসলামপুর নগর মন্ডল আয়োজিত টাউন লাইব্রেরী হলে বিশেষ সাংগঠনিক বৈঠক শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই মন্তব্য করলেন রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ তথা নারী ও শিশু কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। সাংসদ দেবশ্রী বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন নাটক কুশীলব যার জন্য অনশন, সিঙ্গুর, নন্দীগ্রাম, চাষীদের বিভ্রান্ত করে শিল্পকে ভাগিয়ে দেওয়া সমস্তটাই একটি নাটকের উপর ভিত্তি করে। এখন পশ্চিমবঙ্গের চাষীরা বুঝতে পারছেন, তাদের কেমন কপাল পুড়েছে, কারণ কেন্দ্র সরকারের কোন প্রকল্প এরাজ্যের চাষীরা পান না। এখন তাই কোনও মিটিংয়ে বলছেন আমি চলে যাব আমি ছেড়ে চলে যাব। উত্তরবঙ্গের জন্য আমি কি কিছু করিনি। না দিদি আপনি উত্তরবঙ্গের মানুষের জন্য কিছু করেননি। পাহাড় যেখানে ছিল সেখানেই আছে আর বলেছিলেন পাহাড় হাঁসছে, পাহাড় হাঁসছে না।”

বিজেপিকে চম্বলের ডাকাতের দল কটাক্ষ করার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাল্টা আক্রমণ করেছেন সাংসদ দেবশ্রী। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা বিশেষ আর কেউ শুনছেন না। ভারতীয় জনতা পার্টি সম্পর্কে তাঁর ভয়টা এমন পর্যায় পৌঁছে গিয়েছে শ্রীকৃষ্ণের ভয়ে কংসের হয়েছিল শয়নে, স্বপনে কৃষ্ণ আসছে আমার আসন্ন মৃত্যু এই ভয় উনি পেতে শুরু করেছেন। কখনো কুৎসিত ভাষায় কথা বলছেন কখনো চম্বলের ডাকাতদের কথা বলছেন। গোটা ভারতবর্ষে বিজেপি সরকার চলছে বেশিরভাগ প্রদেশের কমবেশি বিজেপি সরকার রয়েছে কোনও রাজ্যে চম্বলের ডাকাতদের উদাহরণ নেই। তবে এই রাজ্যের ডাকাত দলের সর্দারনীর উদাহরণ মানুষ দেখে নিয়েছে। পুরো টাকা গায়েব করে দেওয়া, দিনের পর দিন বাচ্চাদের থেকে শুরু করে কন্যাদের উপর বর্বরোচিত আক্রমণ, বিরোধীদলের ১৩৩ জন বিজেপির কার্যকর্তার খুন এটা চম্বলের ডাকাতদের পক্ষেই সম্ভব। বিজেপি শাসিত কোন রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসায় একজনের মৃত্যু হয় না। তাই ওনার কথাকে মানুষ গুরুত্ব দিচ্ছে না।”

ইসলামপুরের টাউন লাইব্রেরী হলের সভায় উত্তর দিনাজপুর জেলা সহ-সভাপতি সুরজিৎ সেন, ইসলামপুর টাউন বিজেপি সভাপতি সন্দীপ ভট্টাচার্য, ইসলামপুর টাউন মহিলা মোর্চা সভাপতি কল্যাণী সেন, ইসলামপুর টাউন যুব মোর্চা সভাপতি জয় দত্ত, বিজেপি নেতা প্রবীর দাস সহ অন্যান্যরাও। পাশাপাশি দারিভিটের কুন্দরগাঁও গ্রামেও মন্ডল সভাপতি কালিদাস বিশ্বাসের নেতৃত্বে আয়োজিত সাংগঠনিক সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী।

Related Articles

Back to top button
Close