fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘দিলীপ ঘোষ আমাদের জঙ্গলমহলের গর্ব’: পিঙ্কি প্রামাণিক

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করলেন এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী অ্যাথলেটিক পিঙ্কি প্রামাণিক।  বৃহস্পতিবার বিজেপির রাজ্য অফিসে দিলীপ ঘোষের হাত থেকে তিনি বিজেপির পতাকা তুলে নেন তিনি।

২০০৬ এর এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী অ্যাথলেটিক পিঙ্কি প্রামাণিকের একাধিক স্বর্ণ এবং রৌপ্যপদক আছে আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় ক্রীড়া ক্ষেত্রে। বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে তিনি জানান আমি জঙ্গলমহলের মেয়ে ।অসম্ভব দারিদ্রতার সাথে লড়াই করে আমার দৌড়বিদ হিসেবে উঠে আসা। পুরুলিয়া যখন আমি দৌড়ানো শুরু করি তখন আমাদের দিবানা খাবারটুকু জুটতোনা  না পুষ্টিকর খাবার তো অনেক দূরের ব্যাপার । আমি দৌড় শুরু করি  মূলত প্রতিদিন সকালে  এক টুকরো পাউরুটির আর লাড্ডু লোভে। আমি তখন খুব ছোট। একজন স্বহৃদয় পুলিশ আধিকারিক আমার বলেছিলেন আমি যদি রোজ বড় একটা মাঠে একটানা ৫ বার দৌড় সময়ের মধ্যে শেষ করতে  পারি তাহলে আমাকে রোজ রুটি আর লাড্ডু দেওয়া হবে। এভাবেই আমার দৌড়ানো শুরু।আমি যখন জুনিয়র লেভেলের রাজ্যে প্রতিযোগিতায় আসি তখন আমার দৌড়ানোর জন্য একটা পায়ের বুট  ছিলনা ।

জঙ্গলমহলে আমার মত শয়ে শয়ে পিংকি আছে। যারা একটু সুযোগের অপেক্ষায়। সঠিক ট্রেনিং পেলে তারাও আমার মতই বিশ্বের দরবারে বাংলার মুখ উজ্জ্বল করতে পারবে। আমি এক সহৃদয় ব‍্যক্তির সহযোগিতায় ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে বেশ কিছুটা জমি কিনে জঙ্গলমহলের ছেলেমেয়েদের বিনা পয়সায় ট্রেনিং দেওয়ার জন্য  একাডেমি শুরু করার কথা চিন্তা করেছিলাম। কিন্তু সরকারের সহযোগিতার অভাবে জমি কিনে ফেলে রাখা সত্ত্বেও আমি একাডেমিতে শুরু করতে পারিনি ।

আরও পড়ুন: প্রিয় আদিবাসীদের বিষাক্ত তির কেড়ে নিল আদিবাসী বিশেষজ্ঞ রাইলি ফ্রান্সিসকাতোর প্রাণ

বিজেপি রাজ্য সভাপতি সাংসদ দিলীপ ঘোষ আমাদের জঙ্গলমহলের গর্ব। তাই আমি চাই দিলীপ দার হাত ধরে জঙ্গলমহলের জন্য বিশেষ কিছু কাজ করতে ।বিশেষত জঙ্গলমহলের পিছিয়ে পড়া বাচ্চাদের খেলার জগতে সঠিক ট্রেনিং দিয়ে নিয়ে এসে তাদের আন্তর্জাতিক মানের খেলোয়াড় বানাতে। এইসব নিয়ে দিলীপবাবু সাথে বেশ কয়েক দিন ধরে আমার দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয়েছে। তারপরেই পরিবারের সাথে আলোচনা করে আমি বিজেপির পরিবারে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি ।কারণ আমি দেখেছি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পর যা যা বলেছেন তার সবগুলোই প্রায় করে ফেলেছেন ।আমি বিশ্বাস করি ২০২১জঙ্গলমহল রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে শহুরে পশ্চিমবাংলার সাথে পায়ে পা মিলিয়ে  মিলিয়ে চলতে পারবে। সেই কারণে আমার পুরুলিয়া বিশেষত জঙ্গলমহলের শিশু এবং খেলোয়াড়দের উন্নতি করার জন্যই আমার বিজেপিতে যোগদান।

পিঙ্কি প্রামাণিক কে বিজেপিকে স্বাগত জানিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন আজ থেকে পিংকি বিজেপি পরিবারের অন্তর্ভুক্ত হল। যেভাবে ও জঙ্গলমহল তথা পশ্চিমবঙ্গের ক্রীড়াজগতের উন্নতির জন্য বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে তাতে রাজ্য আগামী দিনে সমৃদ্ধ হবে বলেই আমার বিশ্বাস।

 

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close