fbpx
কলকাতাহেডলাইন

পদহীন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে বিশ্রামে যান দিদি: দিলীপ ঘোষ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পুলিশের নজিরবিহীন বিক্ষোভের মুখে পড়লেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার রাত থেকেই পিটিএসে পুলিশ কর্মীরা বিক্ষোভ করছিলেন। বুধবার নবান্নে যাওয়ার পথে মুখ্যমন্ত্রী পিটিএসে গিয়ে পুলিশ কর্মীদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ মুখ্যমন্ত্রীর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর পদ ছেড়ে দিয়ে বিশ্রামে যাওয়া উচিত।’

 

প্রসঙ্গত পিটিএসে জনৈক পুলিশ কর্মী করোনা আক্রান্ত হন। কিন্তু তারপরেও পুলিশ কর্মীরা পিপিই পাননি। এরইমধ্যে আম্ফান সামলাতে ছুটি বাতিল করে পুলিশ কর্মীদের কাজে যোগ দিতে বললে তাঁরা ডিসি কমব্যাটের কাছে বিক্ষোভ দেখান। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের ১০ লক্ষ টাকার বিমা ও অসুস্থদের ১ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করে শান্ত করেন।

 

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এ প্রসঙ্গে মতামত জানাতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বিশ্রামে যাওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, ‘ দিদি স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ব্যর্থ, পুলিশ প্রশাসনেও ব্যর্থ।আগেই ওঁকে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর পদ ছাড়তে বলেছিলাম। এবার বলছি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর পদটাও ছেড়ে দিন। উনি পদহীন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে বিশ্রামে যান।’

 

 

মেদিনীপুরের সাংসদের অভিযোগ ,’ পুলিশের এই বিক্ষোভ কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। দীর্ঘদিন ধরে অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। পিটিএসে পুলিশ কর্মীরা যে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকেন, উনি এতোদিন জানতেন না! এখন ঠেলায় পড়ে বানী দিচ্ছেন। উনি জীবনে রাজনীতি ছাড়া কিছুই জানেন না। স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিসাবে চূড়ান্ত ব্যর্থ। করোনা সামলাতে পারলেন না। হাসপাতালগুলো বন্ধ হয়ে গেল। ডাক্তার, নার্সরা আক্রান্ত হলেন। বহু নার্স বাংলা ছাড়লেন। রেশন নিয়ে চূড়ান্ত দুর্নীতি হলো বলির পাঁঠা হলেন খাদ্যসচিব, স্বাস্থ্য সচিব। এই প্রশাসন নিয়ে উনি ‘ আম্ফানের’ মোকাবিলা কীভাবে করবেন সন্দেহ আছে।’

Related Articles

Back to top button
Close