fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বিয়াল্লিশে বিয়াল্লিশ দিদিও বলেছিলেন পেরেছেন কি? অনুব্রতকে পাল্টা খোঁচা দিলীপের

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: একুশের মহারণে বীরভূমের সবকটি আসন দিদির হাতে তুলে দেবেন কথা দিলেন অনুব্রত মণ্ডল। রবিবার পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মনে করালেন ‘উনিশে দিদি বিয়াল্লিশে বিয়াল্লিশ বলেছিলেন পেয়েছেন কি?’

 

প্রসঙ্গত গত শুক্রবার তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের প্রায় ৪০০ জন নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও বৈঠক করেন। সেই বৈঠকেই তিনি জেলাভিত্তিক দলের সাংগঠনিক অবস্থা পর্যালোচনা করেন। এই সূত্রেই বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল দলনেত্রীকে আশ্বস্ত করেন তাঁর তত্ত্বাবধানে থাকা সবকটি আসনেই জয় এনে দেবেন। বরাবরই রাজনৈতিক আলোচনায় থাকা অনুব্রতর এই আশ্বাস ঘিরে চর্চা শুরু হয়েছে। এই প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ ওঁর দিদিওতো গ্যারান্টি দিয়েছিলেন উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বিয়াল্লিশে বিয়াল্লিশটা আসনই পাবেন। কিন্তু পেয়েছেন কি?’ উল্লেখ্য উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি অভূতপূর্ব ফল করেছিল। আঠারোটি আসন জিতেছিল । বড় ধাক্কা খেয়েছিল শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস।

 

অনুব্রত মণ্ডলের হিসাবমতো একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁর দায়িত্বে থাকা বীরভূম ও বোলপুর লোকসভা আসনের অন্তর্গত (বীরভূমের ১১ ও বর্ধমান জেলার ৩ আসন) ১৪টি আসনের একটিও বিরোধীরা পাবেন না। অর্থাৎ বিরোধীশূন্য থাকবে বীরভূম। এপ্রসঙ্গে মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদের মন্তব্য,’ দিদির মন রাখার জন্য এমনটা বলেছেন অনুব্রত। এবার নিজের গড় রাখতে পারবেন না। কারণ মানুষ এবার বিকল্প খুঁজে নিয়েছে।’ কিন্তু রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, এরআগে কখনও গুড়বাতাসা, কখনও নকুলদানা বা চড়াম চড়াম করে ঢাক বাজানোর কথা বলে নিজের আধিপত্য বজায় রেখেছেন। তাই এবারও অনুব্রতর সব আসন জিতিয়ে আনার শপথ তাৎপর্যপূর্ণ।

 

এ প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ পুরনো হিসাব বদলানোর সময় এসে গিয়েছে। বিজেপি এখন বদলে গিয়েছে। আমরা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই লড়াই করবো। তবে কেউ অন্য ভাষায় কথা বললে সেই ভাষায় জবাব পাবে। সবচেয়ে বড়ো কথা মানুষ বিজেপির সঙ্গে আছে। মানুষই একুশে বদল আনবে।’ বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি যে অমূলক নয়, তার প্রমাণ উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বীরভূমের দুটি লোকসভা আসনেই বিজেপির ভোটের হার বেড়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close