fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দিদিমনি ভোরবেলা ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে এখন স্বপ্ন দেখছেন জেলের মধ্যে আছেন: দিলীপ 

মিলন পণ্ডা,পূর্ব মেদিনীপুর:  দিদিমণি ভোরবেলা ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে এখন স্বপ্ন দেখছেন জেলের মধ্যে আছেন। কয়েকটা ভাই ঘুরে এসেছে। দিদিমণি আপনিও যাবেন জেলে ভাত খাবেন। লালুপ্রসাদ যদি জেলে ভাত পারেন, আপনার কি অসুবিধা রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরে কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লকের মকুন্দপুরে এসে এমনি মন্তব্য করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা সাংষদ দিলীপ ঘোষ। কোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে গোটা এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়।উপস্থিত ছিলেন উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিকরা।

রাজ্য পালা বদলের ক্ষেএে পূর্ব মেদিনীপুর নন্দীগ্রাম গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। তৃনমূল সরকার পরিবর্তনের ডাক দিয়ে পূর্ব মেদিনীপুর যাএা শুরু করলো বিজেপি।এদিন দিঘা, কাঁথি ও পটাশপুরে সভা করেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একের পর এক কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ। রবিবার সকালে সৈকত নগরী দিঘায় মর্নিং ওয়ার্ক সেরে সেখানেই চায়ে পে চর্চায় অংশ নেন তিনি। সাম্প্রতিক কয়েকদিন আগে জেল থেকে সুদীপ্ত সেনের লেখা চিঠি প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ এদিন বলেন, “অনেকের নাম এসেছে। যিনি চিঠি লিখেছেন সেই চিঠির সত্যতা যাচাই করা হোক। যদি মনে হয় সঠিক তথ্য প্রমান আছে তারপর সিবিআই যাকে জিজ্ঞেস করার করবে। জেলের আসামী কথা কেউ বিশ্বাস করে না। যদি সত্যিই আমি কাউকে টাকা দিয়ে থাকেন কেন দিয়েছেন তার জন্য উনাকেই আগে ধরা হোক। যারা ঘুষ নিয়েছেন জিজ্ঞেস করবে সিবিআই।

এদিন সকাল সাড়ে দশটা নাগাট কাঁথিতে আসেন দিলীপ ঘোষ। কাঁচির মেছেদা বাইপাসে সম্বর্ধনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। তারপরে এক হাজার কর্মী-সমর্থকরা বাইক র‍্যালি করে কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লকের চণ্ডীভেটি পৌঁছায়। দেশপ্রাণ বীরেন্দ্র শাসমলের  জন্মভূমি ‘চন্ডীভেটিতে’ গিয়ে প্রকৃতিতে বিজেপি নেত্বয়রা মাল্যদান করেন। এরপরই কিষান র‍্যালিতে অংশ নেন দিলীপ ঘোষ। এদিনের গোটা কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার, কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক তাপস দলাই, সম্পাদক নবীন প্রধান সহ অন্যান্যরা।

কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লক চালতি থেকে মুকুন্দপুর পর্ষন্ত প্রায় পাঁচ কিমি রাস্তা রোডশো করেন। বিজেপি কর্মী সর্মথকদের উদ্দীপন্না চোখে পড়ার মতো। মুকুন্দপুর বাজারে পথসভা করেন দিলীপ ঘোষ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে একের পর এক কটাক্ষ করেন। তিনি কটাক্ষ করে বলেন সবাই মিলে লড়ব, নতুন বাংলা গড়ব। পাশাপাশি তৃণমূল নেতাদের দলত্যাগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,  প্রত্যেকদিন একটার পর একটা দেওয়াল ধসে পড়ছে। এতদিন অপমান নিয়ে তৃণমূল নেতারা বেঁচে ছিলেন। এবার তারা ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন

Related Articles

Back to top button
Close