fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপির ভার্চুয়াল সভায় অংশ নিল দিনহাটার বিভিন্ন এলাকার কর্মী-সমর্থকরা

নিজস্ব সংবাদদাতা, দিনহাটা: করোনা সংক্রমণকে প্রতিহত করতে যখন দেশজুড়ে লড়াই শুরু হয়েছে সেই সময় আগামী বিধানসভা নির্বাচনের দিকে লক্ষ রেখে বিজেপির ভার্চুয়াল সভায় অংশ নিল দিনহাটার বিভিন্ন এলাকার কর্মী-সমর্থকরা। মঙ্গলবার দিনহাটার বিভিন্ন এলাকায় দলের এবং শাখা সংগঠনের কর্মী সমর্থকরা এই ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেয়।

 

 

এদিন বিজেপি নেতা কর্মীরা কেউ বাড়িতে বসে কেউবা আবার দলীয় কার্যালয়ে কম্পিউটার স্কিনের মধ্যে দিয়ে সভায় অংশ নিয়ে সর্বভারতীয় সভাপতির বক্তব্য শোনেন। বিজেপির এই ভার্চুয়াল সভায় এদিন দলের রাজ্য সভাপতি থেকে শুরু করে সর্বভারতীয় সভাপতি সকলেরই বক্তব্যে নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠে আসে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। সভায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অভিযোগ করে বলেন বাংলার মানুষ আয়ুষ্মান ভারত যোজনা সুবিধা পান না।

 

 

 

এদিন বিজেপি রাজ্য কমিটির সদস্য দীপ্তিমান সেনগুপ্ত, কোচবিহার জেলা সম্পাদক সুদেব কর্মকার, দিনহাটা শহর মন্ডল সভাপতি অমিত সরকার, যুব মোর্চার দিনহাটা শহর মন্ডল সভাপতি মুন্না সাউ, বিজেপির ওবিসি মোর্চার শহর মন্ডল সভাপতি মিলন মোদক , রকি চৌধুরী থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই সভায় অংশ নেন। এদিন এই ভার্চুয়াল সভায় বিভিন্ন এলাকার মহলারাও অংশ নেয় বলে দাবী বিজেপি নেতা কর্মীদের। এই সভায় নেট বিভ্রাটের অভিযোগ তোলেন বিজেপি নেতৃত্ব। নানা ভাবেই ভার্চুয়াল সভাকে ভেস্তে যাওয়ার চেষ্টা করে রাজ্যের শাসক দলের নেতাকর্মীরা বলেও অভিযোগ তোলা হয়। তা সত্ত্বেও বিজেপি দলের নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বহু সাধারণ মানুষ এই সমাবেশে অংশ নেন বলেও বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করেন।

 

 

বিজেপি নেতা দীপ্তিমান সেনগুপ্ত বলেন রাজ্যের শাসকদলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানুষ যখন ধীরে ধীরে সরব হয়ে উঠছে তখন ভার্চুয়াল সভা কেউ পন্ড করার জন্য রাজ্যের শাসক দল নেট বিভ্রাট থেকে শুরু করে নানাভাবে চেষ্টা করে । এদিন বিজেপি নেতৃত্ব বলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি যে বার্তা দিয়েছেন তাতে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে খুঁজে পাওয়া যাবে না।

 

 

তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বিশু ধর , প্রাক্তন কাউন্সিলর গৌরীশংকর মাহেশ্বরী অবশ্য বলেন গোটা দেশ যখন করোনা আবহের মধ্যে চলছে তখন বিজেপি ভোটের রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। সাধারণ মানুষ যখন নানাভাবে কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন তখন তারা বিজেপির এই ভার্চুয়াল সভাকে কোনোভাবেই মেনে নেবেন না। যারা দেশের এই বিপদ কালে বিধানসভা নির্বাচনের দিকে লক্ষ রেখে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে তাদের মানুষ বঙ্গোপসাগরে ছুড়ে ফেলবে।

 

 

তৃণমূল নেতা বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা মোকাবিলায় এমনকি ঘূর্ণিঝড় আমপানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করার চেষ্টা করছে । অথচ দেশের ও রাজ্যের এই কঠিন সময়ে বাংলার মানুষ কে নানাভাবে বিপদে ফেলার চেষ্টা করছেন কেন্দ্রের সরকার।
বিধায়ক জগদীশ চন্দ্র বর্মা বসুনিয়া বলেন কঠিন এই সময়ে কোটি কোটি টাকা খরচ করে ভার্চুয়াল সভা করে বিজেপি দেশের অর্থনীতিকে লুণ্ঠিত করার চেষ্টা করছে। মানুষ যখন ঠিকমতো খেতে পারছে না তখন কোটি কোটি টাকা খরচ বিজেপির মানায় না। (ছবি)#

Related Articles

Back to top button
Close