fbpx
কলকাতাহেডলাইন

ত্রাণ বন্টন কোনও রাজনৈতিক দলের কাজ নয়, টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধলেন রাজ্যপাল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আমপান পরবর্তীতে ত্রাণ বন্টন নিয়ে ফের মমতা সরকারকে আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল। শুক্রবার সেই নৈঃশব্দ্য ভেঙে ফের সরব হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধানকর। এদিন আমফানের ত্রাণ বন্টনে দুর্নীতির অভিযোগে শাসক দলকে বিঁধলেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খোঁচা দিয়ে টুইটে লিখলেন, ‘ ত্রাণ বন্টন কোন রাজনৈতিক দলের কাজ নয়।’ আর কী লিখলেন টুইটে? মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তাঁর টুইট, ‘ ত্রাণ বন্টন নিয়ে দুর্নীতি, স্বজনপোষণ ও রাজনীতির অভিযোগে রাজ্যে আলোড়ন। পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বিডিও অফিস ঘেরাও হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক।’

রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় ত্রাণ বিলি কে কেন্দ্র করে বিডিও দের ঘেরাও করা হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুর এবং দুই চব্বিশ পরগনা জেলায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রীতিমতো উদ্বেগজনক। টুইটারে রাজ্যপাল জগদীপ ধানকর আরও লিখেছেন, ত্রাণ বন্টন করার কোনো রকম আইনি অধিকার কোনো রাজনৈতিক দলের নেই। এই ধরনের কাজ করা মানে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করা। এই ত্রাণ দুর্নীতি আরো বড় কেলেঙ্কারির জন্ম দেবে তাই সময়ে পদক্ষেপ করা প্রয়োজন। তিনি টুইটে আরও লিখেছেন, ‘ যাঁরা আর্থিক সাহায্য পাবেন তাঁদের তালিকা পঞ্চায়েত দফতরে রাখতে হবে।ত্রাণ বন্টন কোন রাজনৈতিক দলের কাজ নয়। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের নাম বাদ গেলে সরকারি অফিসারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে হবে। যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত নন অথচ টাকা পেয়েছেন তাঁদের টাকা ফেরত নিতে হবে।’

আরও পড়ুন: কয়লা খনির বেসরকারিকরণ, মোদিকে চিঠি মমতার

প্রসঙ্গত, আমপান পরবর্তী পরিস্থিতিতে ত্রাণ বিলি কে কেন্দ্র করে রাজ্যজুড়ে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। রাজ্যপাল আগেই ত্রাণ বিলি নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে বলে সরব হয়েছিলেন। রাজ্যের বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় গরিব মানুষ একটা ত্রিপল চেয়ে পায়নি। বহু ক্ষতিগ্রস্তরা ত্রান পাননি। অথচ সেই সব গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত সদস্যরা তাদের নিজের আত্মীয়-স্বজন পরিচিতদের মধ্যে ত্রাণের নামে হাজার হাজার টাকা নিজেদের পকেটে ঢুকিয়েছেন। ফলে রাজ্যের গ্রামাঞ্চলের মানুষ রীতিমত ক্ষোভে ফুঁসছে। যদিও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় নবান্নে সর্বদল বৈঠকে আমপান পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। সেখানেই তিনি ত্রাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেছেন।

Related Articles

Back to top button
Close