fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জেলাশাসকের গৃহকর্মী করোনায় আক্রান্ত, লকডাউনের নতুন সময়সীমা ঘোষণা জেলা প্রশাসনের

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি: বীরভূমের প্রধান পৌর শহরগুলোতে করোনা সংক্রমণ দ্রুতহারে বাড়ছে। আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ৪০০ ওপর । মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত ৪ জনের। আক্রান্তের হয়েছে খোদ জেলা শাসকের বাংলোর তিন কর্মী। জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু জানিয়েছেন , যদিও তিনি ওই কর্মীদের সংস্পর্শে আসেননি তবু গোটা প্রশাসন যেহেতু তাঁর সঙ্গে জড়িয়ে আছে সেইজন্য কয়েকদিন তিনি বাড়ি থেকে প্রশাসনিক কাজ করবেন।

               আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ‘ স্মার্ট টিকিটের’ ভাবনা রেলের

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় কয়েকদিন আগেই ২৪শে জুলাই থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত জেলার ৬টি পৌরসভায় বিকাল ৩টে থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত টানা ৭ দিন লকডাউনের ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। সেই সময়সীমা‌ শুক্রবার পরিবর্তন করে বিকেল ৩ টের বদলে দুপুর ১২ টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নিল জেলা প্রশাসন। সেইসঙ্গে নাইট কার্ফু জারি থাকবে রাত ১০ টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত।

শুক্রবার জেলা পরিষদের কনফারেন্স হলে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রশাসনিক বৈঠক বসে । বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন , বীরভূম জেলার পুলিশ সুপার শ্যাম সিং , বীরভূম জেলা পরিষদের পরামর্শদাতা অভিজিৎ সিংহ এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় জেলায় লকডাউনের নতুন সময়সূচীর। বৈঠকে শেষে জেলা পরিষদের পরামর্শদাতা অভিজিৎ সিং জানান , “২৪ শে জুলাই থেকে ৩১ শে জুলাই পর্যন্ত বীরভূমের যে ৬টি পৌরসভায় ( সিউড়ি , সাঁইথিয়া , দুবরাজপুর , রামপুরহাট , বোলপুর , নলহাটি )  দুপুর ৩ টে থেকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল , তার সময়সীমা পরিবর্তন করা হলো । আগামী ২৬ শে জুলাই থেকে ৩১শে জুলাই পর্যন্ত এই সকল এলাকায় দুপুর ১২ টা থেকে শুরু হবে লকডাউন এবং চলবে রাত্রি ১০টা পর্যন্ত ।”

সূত্রের খবর ,জেলাশাসকের বাংলোর তিন কর্মী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় জেলা প্রশাসনের সর্বস্তরে চরম উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।  তড়িঘড়ি শুক্রবার  বৈঠকে বসে প্রশাসনের উচ্চ আধিকারিকরা। পরিস্থিতি উদ্বেগ মনে করেই লকডাউনের এই নতুন সময়সূচি বলে মনে করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close