fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা আক্রান্ত হয়ে জামালপুরে মৃত্যু চিকিৎসকের

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায় বর্ধমান: করোনা অতিমারির মধ্যেও রোগী স্বার্থে পঞ্চায়েত অফিসের চেম্বারে তাঁর ছিল নিয়মিত হাজিরা। তিনি ছিলেন পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর ২ পঞ্চায়েতের চিকিৎসক অনুপ কুমার ঘোষ। সেখানে সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা শেষ করে তিনি এক একদিন পৌছে যেতেন এক এক গ্রামে। সেখানকার সাধারণ মানুষকে তিনি করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাবার উপায় জানিয়ে দিতেন। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শও দিয়ে চলেছিলেন। কিন্ত চিকিৎসক অনুপ ঘোষও শেষপর্যন্ত রেহাই পেলেন না করোনার থাবা থেকে। করোনা তারও প্রাণ কেড়ে নিল।

বর্ধমানের গাংপুরের বেসরকারি কোভিড হাসপাতালে বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। করোনা যোদ্ধা চিকিৎসক অনুপ ঘোষের এমন অকাল মৃত্যুতে জামালপুরবাসীর পাশাপাশি শোকস্তব্ধ জামালপুরের চিকিৎসক মহল। প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, চিকিৎসক অনুপ ঘোষের আদি বাড়ি জামালপুর ব্লকের আঝাপুর পঞ্চায়েতের ভেড়িলি গ্রামে। বর্তমানে তিনি শহর বর্ধমানের বাড়িতে স্বপরিবার বসবাস করতেন।  ৫০ উর্ধ্ব অনুপবাবু দীর্ঘদিন ধরে জামালপুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের মেডিকেল অফিসার (এইচ এম ও) পদে দায়িত্ব সামলে আসছিলেন।

জামালপুর ব্লক স্বাস্থকেন্দ্রের বিএমওএইচ চিকিৎসক আনন্দ মোহন গড়াই বলেন, অনুপ ঘোষ কিছুদিন যাবৎ অসুস্থতা বোধ করছিলেন। কিন্তু তিনি পরিবারের লোকজন বা পঞ্চায়েতকর্মী কাউকেই কিছু জানান নি। বুধবার বর্ধমানের কোভিড পরিক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে তিনি পরীক্ষা করান। রিপোর্ট পজিটিভ আসলে তিনি আতঙ্কে আড়ও অসুস্থ  হয়ে পড়েন। ওই দিনই অনুপবাবুকে বর্ধমানের গাংপুরের বেসরকারী কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই  বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি মারা যান । করোনা ধরা পড়ায় আতঙ্কেই অনুপবাবু হার্টফেল করেছেন বলে মনে করছেন সহকর্মীরা।

ব্লকের বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার বলেন, করোনা নিয়ে সাধারণ মানুষজনের মধ্যে সচেতনতা জাগানোর কাজে চিকিৎসক অনুপ ঘোষ গুরূত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। করোনা অতিমারির মধ্যেও পঞ্চায়েত অফিসের চেম্বারে রোগী দেখা সেরে তিনি গ্রামে গ্রামে যেতেন। প্রশাসনের সহযোগী হিসাবে তিনি সেখানকার সাধারণ মানুষজনকে করোনা নিয়ে সচেতন করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বার্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে এমন এক করোনা যোদ্ধা চিকিৎসকের মৃত্যু সত্যি দুঃখের।

Related Articles

Back to top button
Close