fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পুজোর আবহে দরিদ্র পরিবারের শিশুদের মধ্যে বস্ত্রদান

সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাঁইথিয়া: করোনা আবহে পুজোর সময়ে কাজ হারানো পরিযায়ী শ্রমিক, ট্রেনের হকার, বাস শ্রমিকদের পরিবারের সন্তানদের হাতে নতুন জামাপ্যান্ট তুলে দিল হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ বীরভূম খোলা হাওয়া। জেলার বোলপুর, আমোদপুর, সাঁইথিয়ার প্রায় ১৭০ জন চার থেকে চোদ্দ বছর বয়সী ছেলে মেয়েদের হাতে পোশাক তুলে দেন খোলা হাওয়ার সদস্যরা।

হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের কর্মকর্তা প্রসেনজিৎ মুখোপাধ্যায় জানান, এটাই প্রথম নয়, আমরা বছর চারেক ধরে এভাবেই বিভিন্ন রকম সমাজসেবামুলক কাজ করে চলেছি। তবে এবারের পুজোতে দরিদ্র পরিবারের শিশুদের বস্ত্র দেওয়ার পরিকল্পনা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। কারণ যোগাযোগ ব্যবস্থার অপ্রতুলতা। তবুও খোলা হাওয়ার নিবেদিতপ্রাণ সদস্যরা পুজোর সময়েও বাচ্চাদের পরাতে পেরেছে নতুন জামাপ্যান্ট।
খোলা হাওয়া হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে বীরভুম জেলা এবং জেলার বাইরের প্রায় আড়াইশো জন সদস্য রয়েছেন। কিছু সদস্য দেশের বাইরে থাকেন। যে যার সাধ্যমতো আর্থিক অনুদান দিয়ে থাকেন। সমাজসেবা, সাহিত্য ও সংস্কৃতির অঙ্গনে বিভিন্ন কাজকর্মের প্রধান পৃষ্ঠপোষক খোলা হাওয়ার সভাপতি ড. পার্থসারথি মুখোপাধ্যায় জানান, একটি হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের এমন অভিনব উদ্যোগ জেলায় পথপ্রদর্শকের ভূমিকা নিচ্ছে।

আরও পড়ুন:লকডাউনের আবহ কাটিয়ে আগামী ১ নভেম্বর থেকে খুলে যাচ্ছে সুন্দরবনের সব পর্যটন কেন্দ্র

বোলপুরের বাসিন্দা গ্রুপের সদস্য সুদীপ্ত আচার্য, শ্যামল মাজী আমোদপুরের শান্তা চৌধুরী, সজল চট্টোপাধ্যায় সাঁইথিয়ার সোমা রায়, রানা বৈদ্যরা বলেন, পুজোর দিন পনেরো আগে আমরা গ্রুপের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে চাঁদা তুলে বস্ত্র বিতরণের পরিকল্পনা করেছিলাম। আর এক সদস্য রাজকুমার সাহা হাওড়া থেকে বস্ত্র পাঠানোর দায়িত্ব নেন এবং সব কিছু সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়।

Related Articles

Back to top button
Close