fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পানীয় জলে জ্যান্ত সাপ! এলাকায় আতঙ্ক

মিলন পণ্ডা ও শুভঙ্কর মিশ্র, এগরা (পূর্ব মেদিনীপুর): পানীয় জলে মিলল জ্যান্ত সাপ। যা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায়। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ব্যাপক আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।ঘটনার পর স্থানীয় এক দোকানদার তৃণমূল পরিচালিত পৌরসভায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে এগরা পৌরসভা।ভএই ঘটনার পর রাজনৈতিক তরজা তৈরি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে এগরা পৌরসভার বাজার সংলগ্ন এলাকায় সাধারন মানুষ ও ব্যাবসায়ীদের সুবিধা জন্য একটি পানীয় জলের রিজার্ভার রয়েছে। সেখান থেকে স্থানীয় বাসিন্দা থেকে ব্যাবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে পানীয় জল ব্যাবহার করেন। রবিবার সকালে স্থানীয় এক দোকানদার বোতলের করে রিজার্ভার থেকে পানীয় জল আনতে যায়। জল নেওয়ার পর দেখে বোতলের ভেতর একটি জ্যান্ত সাপ। বোতলের মধ্যে জ্যান্ত দেখে নবীন সিংহ নামে দোকানদার চিৎকার শুরু করে দেন।

দোকানদারের চিৎকার শুনে স্থানীয় বাসিন্দা থেকে অন্য অন্য দোকানদাররা ছুটে আসে। তারপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন। স্থানীয় বাসিন্দা থেকে ব্যবসায়ীরা একজোট হয়ে এগরা পৌরসভায় হাজির হয়। এরপর এগরা পৌরসভার প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। স্থানীয় দোকানদার নবীন সিংহ বলেন, এদিন সকালে দোকানের খাওয়ার জন্য পানীয় জল আনতে গিয়েছিলাম। জল নেওয়ার পর দেখি বোতলের মধ্যে একটি জ্যান্ত সাপ রয়েছে। এই ঘটনার পর রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে যাই। তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আবর্জনা ও পানীয় জলের ট্যাঙ্ক পরিষ্কার হয়না।

এগরা পৌরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান স্বপন নায়ক বলেন, পানীয় জল থেকে জ্যান্ত সাপ বেরোনোর সত্যতা স্বীকার করে নেয়। এগরা পুরসভার প্রশাসক শঙ্কর বেরা বলেন, নিয়ম করে সাত দিন অন্তর রিজার্ভারগুলো পরিষ্কার করা হয়। এই ঘটনা জানার পর আমরা পৌরসভা আধিকারিককে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলেছি। এর পিছনে কে বা কারা রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

কাঁথি সাংগঠনিক বিজেপি সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী বলেন, রাজ্য সরকার ও এগরা পৌরসভা প্রশাসক বর্বর। ওই বর্বর এর কাছ থেকে এর থেকে বেশি আশা করা যায় না। মানুষ যোগ্য জবাব দেবেন। মানুষ তাদের নিজেদের সুরক্ষার জন্য রাস্তায় নামুক।

Related Articles

Back to top button
Close