fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা আতঙ্কে হাসপাতালে ভর্তিতে অনীহা, ফাঁকাই থাকছে বেড

শান্তনু চট্টোপাধ্যায়, রায়গঞ্জ: করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা উত্তর দিনাজপুর জেলায় ক্রমবর্ধমান, আতঙ্কের ছায়া রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও। করোনা আতঙ্কে রোগীই ভর্তি হচ্ছে না হাসপাতালে।

 

 

রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫০০ টি বেড থাকলেও ১০০ জন রোগীও ভর্তি নেই,  ফলে একপ্রকার হাত-পা গুটিয়েই বসে রয়েছেন হাসপাতালের ইমার্জেন্সি থেকে বিভিন্ন ওয়ার্ডে কর্মরত চিকিৎসক থেকে নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। করোনা আতঙ্কের কারনেই রোগীরা গুরুতর সমস্যা না হলে ভর্তি হতে চাইছেন না বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। যদিও গ্রামে গঞ্জে সাধারণ মানুষকে এবিষয়ে সচেতন করার কাজ চালাচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা।

 

 

উল্লেখ্য, উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিন দিনাজপুর জেলার একমাত্র মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ‘ রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ‘। অন্যান্য বার এই গরমের সময়ে হাসপাতাল উপচে পড়তো রোগীদের ভীড়ে। বেড অমিল থাকায় ওয়ার্ডের মেঝেতে থাকতে বাধ্য হতেন রোগীরা। তবে বর্তমানে এই করোনা আবহের আতঙ্কে কোনও রোগীই ভর্তি হতে চাইছেন না রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। হাসপাতালের প্রায় প্রতিটি ওয়ার্ডের সিংহভাগ শয্যা ফাঁকা পড়ে রয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মী থেকে চিকিৎসক সকলেই রয়েছেন কিন্তু রোগী প্রায় নেই বললেই চলে। বিশেষ করে যেদিন থেকে উত্তর দিনাজপুর জেলায় পরিযায়ী শ্রমিকেরা ঢুকতে শুরু করেছে সেদিন থেকেই অস্বাভাবিক ভাবে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা কমে গিয়েছে। যদিও রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কিন্তু কোনও করোনা রোগীর চিকিৎসা করা হচ্ছে না।

 

 

করোনার জন্য আলাদা হাসপাতাল করেছে জেলা প্রশাসন।  তবুও সাধারণ মানুষের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি হলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হতে পারে এই আতঙ্ক গ্রাস করেছে। কলেজের অতিরিক্ত সুপার অভিক মাইতি বলেন,”  করোনা আতংকে সাধারণ রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হতে চাইছে না। আউটডোরে দেখিয়ে চলে যাচ্ছেন। এখনো হাসপাতালে প্রায় ৫০ শতাংশ বেড ফাঁকা পড়ে রয়েছে। করোনা আতংকেই এমনটা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close