fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউনে অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন বিড়ি শ্রমিকরা

সুকুমার রঞ্জন সরকার, কুমারগ্রাম : করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশ জুড়ে চলা লক ডাউনে অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন কুমারগ্রাম ব্লকের দুই হাজার এর বেশি বিড়ি শ্রমিক। এরা বিড়ি বাঁধাই এর কাজ করেই জীবিকা নির্বাহ করেন। লক ডাউনের জেরে বন্ধ হয়ে আছে বিড়ি বাঁধাই এর কাজ।

কুমারগ্রাম ব্লকের বারবিশা, পুর্বচকচকা, নারারথলি, লস্করপাড়া, কামাক্ষ্যাগুরি প্রভৃতি এলাকার এই বিড়ি শ্রমিকরা জেলা শহর আলিপুরদুয়ার এর তিনটি বিড়ি কারখানার বিড়ি বাঁধাই করেন। তারা প্রতি সপ্তাহে একবার জেলা সদরের কারখানায় গিয়ে বিড়ি বাঁধাই এর প্রয়োজনীয় তামাক, বিড়ির পাতা ও সুতো নিয়ে আসেন এবং বাড়িতে বসেই বিড়ি বাঁধাই করেন। বাঁধাই হবার পর সপ্তাহ শেষে পুনরায় কারখানায় গিয়ে সেগুলো জমা করে প্রাপ্য মজুরি ও পরের সপ্তাহের প্রয়োজনীয় কাঁচামাল নিয়ে আসেন। এভাবেই চলে তাদের বিড়ি বাঁধাই।

লকডাউনের জেরে সব বন্ধ থাকায় জীবিকা হারিয়ে অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন তারা। বিড়ি বাঁধাই শ্রমিক লিপি সরকার, জ্যোৎস্না দাস, প্রীতি বর্মন সহ অনেকেই জানান তারা একাজ করেই পরিবারের ভরন পোষণ করতেন। লকডাউনের জেরে কাজ বন্ধ থাকায় তারা পরিবারের মুখে খাবার তুলে দিতে হিমশিম খাচ্ছেন। সরকারি প্রকল্পের সুবিধা ও তারা পাচ্ছেননা বলে জানান এই শ্রমিকরা।

তারা বলেন, সরকার বিড়ি শ্রমিকদের জন্য পরিচিতি পত্র দিয়েছেন, অনেক প্রকল্পের সুবিধা ও দিয়েছেন তবে সেগুলো সবই স্বাভাবিক সময়ের জন্য। এই আপৎকালীন পরিস্থিতিতে তাদের জন্য কোন প্রকল্প সরকারি ভাবে নেই। তাদের দাবী সরকার এই আপৎকালীন পরিস্থিতিতে অসহায় বিড়ি শ্রমিকদের বাঁচাতে কিছু প্রকল্প ঘোষনা করুক। বিষয়টি নিয়ে শ্রম দপ্তরের বক্তব্য জানার জন্য বারবার ফোন করেও যোগাযোগ করা যায়নি।

Related Articles

Back to top button
Close