fbpx
অন্যান্যঅফবিটকলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউনের জেরে, ৩০ বছর পরে কলকাতার ঘাটে খেলে বেড়াচ্ছে গাঙ্গেয় ডলফিন

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: লকডাউনে রূপোলি রেখা একটিই, তা হল দেশজুড়ে প্রকৃতি ক্ষত সারিয়ে ফিরছে পুরনো রূপে। আরও সবুজ গাছের পাতা, আকাশ আরও নীল। বিশ্বজুড়েই ফিরে আসছে হারিয়ে যাওয়া জীবজন্তুরা। যেমন ৩০ বছর পর কলকাতার গঙ্গায় ফিরে এল গাঙ্গেয় ডলফিন, যারা দক্ষিণ এশীয় ডলফিনের একটি প্রজাতি। প্রায় হারিয়ে যাওয়া এই প্রাণিটির ফিরে আসার একটাই কারণ লকডাউনের জেরে এখন গঙ্গার জল অনেকটাই দূষণমুক্ত।

এই মুহূর্তে গাঙ্গেয় ডলফিন বিপন্ন প্রজাতির অন্তর্ভুক্ত। পরিবেশবিদদের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সারা বিশ্বে এই ডলফিনের সংখ্যা ১২০০ থেকে ১৮০০ র মধ্যে। কলকাতার গঙ্গায় এই ডলফিনদের এক সময় সর্বক্ষণই দেখা যেত। তারপর গঙ্গায় দূষণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্রমশ হারিয়ে গিয়েছে এই সুন্দর জলচর প্রাণিটি।

মূলত কলকারখানার দূষিত জল গঙ্গায় মেশায় জলে দূষণ বেড়েছে। লকডাউনের ফলে কলকারখানা বন্ধ, বন্ধ মন্দির। ফলে পচা ফুল গঙ্গার জলে পড়ে দূষণেরও সম্ভাবনা নেই। আর গঙ্গা পুরনো রূপ ফিরে পেতেই কলকাতার ঘাটে খেলে বেড়াচ্ছে ডলফিনরা।

দক্ষিণ এশীয় ডলফিনের দুটি প্রজাতি রয়েছে। একটি গ্যাঙ্গেজ রিভার ডলফিন বা গাঙ্গেয় ডলফিন, অন্যটি ইন্দাস রিভার ডলফিন। গ্যাঙ্গেজ রিভার ডলফিন গঙ্গা ও অসমের ব্রহ্মপুত্র নদে দেখা যায়। আর ইন্দাস রিভার ডলফিন পাওয়া যায় পাকিস্তানের বিপাশা নদিতে।
পরিবেশবিদ বিশ্বজিৎ রায় জানিয়েছেন, কলকাতার বাবুঘাটে কয়েকটি গাঙ্গেয় ডলফিনকে খেলে বেড়াতে দেখেছেন। তার কারণ লকডাউনের জেরে গঙ্গার জলের দূষণ কমে যাওয়া।

শুধু গঙ্গায় ডলফিনই নয়, কলকাতার আশেপাশে দেখা মিলছে শিয়াল, বাদুড়, চামচিকেদের।
শহর জুড়ে গা শিরশিরানো রাত নামছে তাড়াতাড়ি। পেঁচার গম্ভীর ডাকও শুনছেন কেউ কেউ!!!

Related Articles

Back to top button
Close