fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

উত্তরবঙ্গ সফরে, মাল নদীতে দুর্ঘটনায় স্বজনহারা পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

যুগশঙ্খ,  ওয়েব ডেস্ক:জল্পনা ছিলই সেই মতো উত্তরবঙ্গ সফরের নির্ধারিত সূচী পরিবর্তন করে মাল নদীতে দুর্ঘটনায় প্রয়াতদের বাড়িতে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী। তাদের সঙ্গে কথা বললেন তিনি। এমনকী চা পান করলেন মুখ্যমন্ত্রী। সঙ্গে ছিলেন মুখ্য সচিব ও রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। চার দিনের উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামীকাল মাল আদর্শ বিদ্যাভবনে তার প্রশাসনিক বৈঠক রয়েছে। সেখানেই মালবাজারে বিসর্জন দেখতে গিয়ে হড়পা বানে মৃতদের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর। কিন্তু তার আগেই এদিন উত্তরবঙ্গে পৌঁছেই মৃতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন তিনি। এদিন প্রথমে তিনি যান নিহত তপন অধিকারীর বাড়িতে। পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যান আরও একজন নিহতের বাড়িতে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সঙ্গে দেখা করে বলেন, “বিপর্যয়, দুর্যোগ, অঘটন ঘটে। মালে এমনই একটি ঘটনা ঘটেছিল। হড়পা বান বা জলটি কোথা থেকে এসেছে, সেটি পরে তদন্ত করে বেরোবে। আটজন মারা গিয়েছেন। আমি নিজে ছয়জনের বাড়িতে গিয়ে দেখা করলাম। আর একজনের পরিবার এখানে নেই। তাঁরা গয়ায় গিয়েছেন। আমি এদের সঙ্গে কথা বলে গেলাম।”

এরপরেই উদ্ধার কার্যে এগিয়ে আসা ব্যক্তিদের প্রশংসা করেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, “প্রশাসনিক স্তর থেকে স্থানীয় মানুষ, বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী রাতভর উদ্ধার কাজ করেছেন। তাই ৪৫০ জনকে বাঁচানো গিয়েছে। আমি তাঁদের প্রত্যেকের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এইভাবে পাড়ার ছেলেমেয়েরা এগিয়ে এলে আমরা প্রাণ রক্ষা করতে পারি”। মমতা আরও জানান, “আগামিকাল বৈঠক আছে। যে ছেলে-মেয়েরা সবার জীবন বাঁচিয়েছে, আমি তাঁদেরও কাল বৈঠকে ডেকেছি। তাই বৈঠকের আগে একটু সবার সঙ্গে দেখা করে গেলাম”।

প্রসঙ্গত, আগামীকাল বৈঠকের পর অর্থাৎ ১৯ অক্টোবর শিলিগুড়ির কাওয়াখালীতে যাওয়ার কথা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। সেখানে এক বিজয়া সম্মিলনীতে যোগ দেওয়ার কথা তার। এরপর ২০ তারিখ ফের কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেবের মুখ্যমন্ত্রী।

Related Articles

Back to top button
Close