fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনার আবহে ঈদ, তবুও শহর থেকে গ্রামে উৎসবের স্পর্শ

মোকতার হোসেন মন্ডল: মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেই ঈদের আনন্দে মেতে উঠলো মুসলিম সমাজ। শনিবার শহরাঞ্চলে ঈদুল আজহার নামাজ বাড়িতেই হয়েছে। তবে মসজিদগুলিতে ছোট ছোট একাধিক জামাত হয়েছে। কলকাতার রেড রোড সহ একাধিক জায়গা ছিল ফাঁকা। শুধু কলকাতা নয়, দেশের প্রায় সমস্ত শহরে ঈদের বড় জমায়েত হয়নি। গত ঈদুল ফিতরের মতোই সতর্কতার সঙ্গে শারীরিক দূরত্ব রেখে নামাজ হয়েছে।
কিছু কিছু জায়গায় মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।
তবে অনেক জেলায় গ্রামের দিকে ঈদগাহে বড় জামাত হয়েছে। ওইসব এলাকায় এখনো পর্যন্ত কেউ করোনা আক্রান্ত হয়নি বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।
অনেক ঈদের ময়দানে মহিলাদের উপস্থিতিও ছিল বলে জানা গেছে। এদিন
প্রায় সকলেই করোনা মুক্তির জন্য প্রার্থনা করেছেন। ঈদের নামাজ শেষে ঘরে মিষ্টি, সীমাই খেয়েছে। গত ঈদের চেয়ে এবার অনেককে নতুন পোশাকে দেখা গেছে।
ঈদুল আজহায় ত্যাগের প্রমাণ দিতে পশু কাটা হয় বলে একে কুরবানী ঈদও বলে। অন্য বছরের মতো এদিনও পশুর মাংস দুঃস্থ ও গরিবদের বিতরণ করা হয়েছে। মুসলিমরা প্রায় সারাদিন গরিবের বাড়ি বাড়ি মাংস পৌঁছে দিয়ে এসেছে।
এবারের ঈদের দিন অনেককে মাস্ক পরে রাস্তায় বেরুতে দেখা গেছে। এক মুসলিম যুবক জানান, করোনা ভাইরাসের জন্য সেইভাবে মন খুলে আনন্দ করতে পারছি না। কোথাও যেতে গেলে একটা কেমন করোনার ভয় লাগছে। এবার পরপর দুটো ঈদ ঘরেই কাটলো। কবে স্বাভাবিক হবে জানিনা। দোয়া করছি, আল্লাহ যেন দ্রুত করোনা মুক্ত করে দেন।
এদিন ঈদ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি,মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ রাজনৈতিক,সামাজিক আন্দোলনের নেতারা শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছেন। করোনার মধ্যে সোশ্যাল সাইটে নিজের ঈদের অভিজ্ঞতার কথাও জানিয়েছেন অনেকে।

Related Articles

Back to top button
Close