fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জামবনিতে হাতির হামলায় ভাঙল বাড়ি ,অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন পরিবারের লোকেরা, এলাকায় জুড়ে আতঙ্ক

সুদর্শন বেরা, ঝাড়গ্রাম:  রবিবার ভোরে ঝাড়গ্রাম জেলার জামবনি ব্লক এর বড়শোল গ্রামে একটি পূর্ণবয়স্ক দাঁতাল হাতি ঢুকে পড়ে । গ্রামের প্রথমেই থাকা দুলাল মাহাতোর বাড়িতে হানা দেয় একটি দাঁতাল হাতি। ওই হাতির তাণ্ডবে দুলাল মাহাতো’র মাটির বাড়িটি হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে। হাতি বাড়িতে ঢুকে পড়েছে জানতে পারার পর দ্রুত বাড়ি থেকে দুলাল মাহাতো তার পরিবারের সকলকে নিয়ে বেরিয়ে যায়। যার ফলে অল্পের জন্য ওই পরিবারের সকলেই প্রাণে বেঁচে যায়।

রবিবার ভোর চারটে নাগাদ দাঁতাল হাতিটি গ্রামে ঢুকে প্রায় দু’ঘণ্টা তাণ্ডব চালানোর পর সকাল ছটা নাগাদ গ্রামবাসীদের চেষ্টায় হাতিটিকে জঙ্গলের দিকে পাঠানো সম্ভব হয়। শীতকালে যেভাবে ভোরবেলা হাতি গ্রামে ঢুকে তাণ্ডব চালাচ্ছে তাতে যথেষ্ট আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন ওই গ্রামের বাসিন্দারা। দুলাল মাহাতো বলেন যেভাবে হাতিটি ঘরের মধ্যে ঢুকে বাড়িটিকে ভেঙে তছনছ করে দিয়েছে তাতে আতঙ্কের মধ্যে আমিও আমার পরিবারের সকলের রয়েছি।’

তিনি বলেন ভাগ্যজোরে পরিবারের সকলকে নিয়ে আমি প্রাণে বেঁচে গিয়েছি। বিষয়টি বন দফতরকে জানানো হয়েছে। বন দফতরের পক্ষ থেকে দুলাল মাহাতোর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে এলাকায় বেশ কয়েকটি দাঁতাল হাতি রয়েছে। সেই হাতিগুলিকে অন্যত্র পাঠানোর ব্যবস্থা করা না হলে বড় ধরনের ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করছেন গ্রামবাসীরা। হাতির হামলার আশঙ্কায় এলাকা জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকার বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে বনদফতর এর পক্ষ থেকে জানানো হয় যে হাতির গতিবিধির উপর বন দফতরের কর্মীরা নজরদারি শুরু করেছে।

Related Articles

Back to top button
Close