fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দাঁতালের তান্ডবে তছনছ কয়েকটি বাড়ি, খেয়ে নিল কয়েক মণ ধান

কৃষ্ণা দাস, রাজগঞ্জ: একই দিনে দুটি পৃথক ঘটনায় রাজগঞ্জে দুই জায়গায় পাঁচটি বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে কয়েক মণ ধান খেয়ে গেল বুনো হাতির দল । রবিবার রাতে রাজগঞ্জের মিলনপল্লী এবং নধাবাড়িতে ওই ঘটনা । এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে ।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাত ১ টা নাগাদ তিস্তার চরের মিলনপল্লীর অবিরাম বিশ্বাস নামে এক ব্যাক্তির বাড়িতে একটি বুনো হাতি তাণ্ডব চালায় । গাছ থেকে কাঁঠাল পেড়ে খাওয়ার পাশাপাশি  ঘরের বেড়া ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে ঘরে থাকা কয়েক বস্তা ধান খেয়ে ধানগুলো চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেলে রাখে । ওই গ্রামেরই গোপাল চৌধুরী নামে আর এক ব্যাক্তির বাড়িতেও ঠিক একইভাবল ভাঙচুর চালায় হাতিটি । প্রায় এক ঘণ্টা দুটি বাড়িতে তাণ্ডব চালানোর পর হাতিটি জঙ্গলে ফিরে যায় । অবিরাম বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, প্রচুর কাঁঠাল খেয়ে নষ্ট করেছে হাতুটি। এছাড়া প্রায় ৭ মণ ধান খেয়ে সেগুলো তছনছ করে একটি দাঁতাল হাতি । তার বক্তব্য,  হাতিটির ভয়ে সারা রাত পরিবারের সদস্যদের নিয়ে রাত জেগে থাকতে হয়েছে তাদের । ফের খাবারের লোভে হাতি আসতে পারে ভেবে এদিনও তারা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন ।
অন্যদিকে, নধাবাড়ি এলাকার দ্বিজেন রায়, সুশীল রায় ও অমল রায়ের বাড়িতেও দুইটি হাতি তাণ্ডব চালায় বলে জানা গিয়েছে । অভিযোগ, তিনটি বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে এখানেও ঘরে থাকা ধান খেয়ে তছনছ করে হাতি দুটু। এছাড়া দীর্ঘক্ষন তাণ্ডব চালানোর পর ধানের বস্তা সঙ্গে করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ । এই ঘটনায় রাতের বেলা এলাকায় বনদপ্তরের কর্মীদের টহল দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা । এব্যাপারে রেঞ্জ অফিসার নীলা রাইয়ের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলেও তার প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি । তবে এক বিট অফিসার দীপক রায়প্রধান সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন , রবিবার রাতে দুইটি হাতি পাঁচটি বাড়িতে তাণ্ডব চালিয়ে ধান খেয়ে গেছে বলে পরিবারগুলির অভিযোগ । ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে । পরিবারগুলি বনদপ্তরের নিয়ম অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ পাবে ।

Related Articles

Back to top button
Close