fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রাক্তনীরা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াল

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : এবার সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দিল বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রাক্তনীরাI

প্রাক্তনীদের তরফে শুরু হওয়া ত্রাণ কর্মসূচির অঙ্গ হিসেবে প্রথম পর্যায়ে রবিবার সকালে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনী ব্লকের কর্ণগড় ও পীরচক এলাকার ৫০ টির বেশি দুঃস্থ এবং  আর্থিক দিক থেকে প্রবলভাবে পিছিয়ে পড়া  পরিবারের হাতে অতি প্রয়োজনীয় খাদ্য-সামগ্রী, মাস্ক ও স্যানিটাইজার তুলে দেওয়া হয়।  এছাড়াও সদস্যরা এই এলাকার মানুষদের উদ্দেশ্যে, এই মহামারীর সময়কালে অত্যাবশ্যকীয় পালনীয় স্বাস্থ্য-বিধি সম্পর্কে সচেতনতার বার্তা দেয়। প্রাক্তনীদের এই কর্মসূচিতে কর্ণগড় গ্রাম পঞ্চায়েত সব রকমের প্রশাসনিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।

ইংরেজি বিভাগের প্রাক্তনী সংসদের পক্ষে অধ্যাপক ড. জয়জিৎ ঘোষ বলেন, এই মহৎ কাজের জন্য প্রাক্তনীর সদস্যরা  স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে এসেছেন এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন। বিভাগের সাথে যুক্ত অধ্যাপক-অধ্যাপিকারাও এগিয়ে এসেছেন। এটা আমাদের কাছে দারুন লাগছে। তিনি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানান, ইংরেজি বিভাগের বর্তমান বিভাগীয় প্রধান ড. জলি দাসকে। তাঁর সক্রিয় সহযোগিতার জন্য। ড. ঘোষ জানান, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগের প্রাক্তনীরা আগামী দিনেও এইভাবে জেলা এবং পার্শ্ববর্তী জেলা ও সংলগ্ন বিভিন্ন প্রান্তে‌ অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে সবাই আজ হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। এটা সুশিক্ষিত সমাজের লক্ষণ। সুশিক্ষার পরিচায়ক।

এদিন কর্ণগড়-পীরচক এলাকার পরিবারগুলির পক্ষ থেকে এলাকার যুবক সুকুমার নায়েক জানান, মহামারীর এই কর্মনাশা, রুজি-রোজগারহীন পরিস্থিতিতে বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের  ইংরেজি বিভাগের প্রাক্তনী সংসদের এই উদ্যোগ যথেষ্ট প্রশংসনীয় এবং এই রসদ আগামীদিনে তাঁদের জীবন যুদ্ধে লড়াই করতে অণুপ্রেরণা যোগাবে। এরকম মহানুভবতা সচরাচর দেখা যায় না।

Related Articles

Back to top button
Close