fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বহিস্কৃত তৃনমূল কংগ্রেস নেতা নুর আলম হোসেনের  সাংগঠনিক সভা ঘিরে বিতর্ক

নিজস্ব সংবাদদাতা দিনহাটা: বহিস্কৃত তৃনমূল কংগ্রেস নেতা   জেলা  পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ  নুর আলম হোসেন বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েতে গিয়ে  সাংগঠনিক সভা করছে। এর প্রতিবাদে  সরব  হল দলের অপর গোষ্ঠির   তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। রবিবার দলের মহকুমা কার্যালযয়ে অলোক নন্দী ভবনে আলম বিরোধী গোষ্ঠির নেতাকর্মীদের জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলা পরিষদের মেন্টর সুবল রায়, তৃণমূলের সিতাই বিধানসভা  কমিটির ডেপুটি কনভেনার প্রসন্ন দেব শর্মা, তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস সভানেত্রী জেলা পরিষদের সদস্য প্রতিমা সরকার, গীতালদহ ১ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান আবুয়াল আজাদ,  পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য সমরেশ দেব, দলের এসসি এসটি ওবিসি  সেলের দিনহাটা ১ ব্লক  সভাপতি পর্বানন্দ বর্মন, মোশারফ হোসেন প্রমুখ।

এদিনের সভায় সংগঠনকে শক্তিশালী করে তুলতে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা ছাড়াও ধর্ষণকাণ্ডে দলের দিনহাটা ১ ব্লকের বহিস্কৃত নেতার বিভিন্ন সভা-সমিতিতে যোগদান করা নিয়েও  নেতৃত্ব সরব হয়। বহিস্কৃত নেতা বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ায় কার্যত দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে বলেও তারা অভিযোগ তোলেন। উল্লেখ্য দিনহাটায় প্রাথমিক শিক্ষিকা ধর্ষণকাণ্ডে তৃণমূল নেতা নুর আলম হোসেনকে দল বহিষ্কার করে। দিন কয়েক আগে জামিন পেতেই তিনি দলের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন বলেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ।

এদিন বৈঠক শেষে সিতাই বিধানসভা কার্যকরী কমিটির ডেপুটি কনভেনার প্রসন্ন দেব শর্মা বলেন, ধর্ষণকাণ্ডে জেলা পরিষদের সদস্য দলের কার্যকরী কমিটির আহ্বায়ক নুর হোসেনকে বহিস্কার করেছে জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব। তার পরেও ওই নেতা বিভিন্ন দলীয়  কর্মসূচীতে অংশ নিচ্ছে। এর ফলে দল নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। পাশাপাশি বিরোধীদের হাতে অস্ত্র তুলে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও নেতৃত্ব অভিযোগ আনে। এই নেতা যাতে কোন ভাবেই দলের কোন কর্মসূচীতে অংশ না নেয় তার জন্য ব্লক নেতৃত্ব থেকে শুরু করে জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব কে জানানো হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close