fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খকলকাতাহেডলাইন

নীরবতা ভেঙে বিস্ফোরক ধনকড়! রাজ্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ সংবিধান লঙ্ঘনের

নিজস্ব প্রতিনিধি: নবান্ন বনাম রাজভবনের সংঘাত বহুবার দেখেছে রাজ্যবাসী। তবে বেশ কিছুদিন অবশ্য চুপচাপই ছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। কিন্তু এবার নীরবতা ভাঙলেন তিনি। স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে ফের আক্রমণ করলেন রাজ্য সরকারকে। দীর্ঘ প্রায় মাস দুয়েক পর নীরবতা ভাঙলেন রাজ্যপাল। ফের একবার আক্রমণে শান দিলেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। রবিবার ফিনান্স কমিশনের সুপারিশ না পাঠানো নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছেন তিনি। সংবিধানের ২৪৩ (আই) এবং ২৪৩ (ওয়াই) অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর ফিনান্স কমিশন কোনও সুপারিশ পাঠাচ্ছে না বলে এদিন টুইটের মাধ্যমে অভিযোগ করেছেন তিনি। ধনকড়ের দাবি, ২০১৪ সাল থেকে কোনও সুপারিশই নাকি পাঠানো হয়নি তাঁকে। যে ঘটনাকে সাংবিধানিক পরিকাঠামো ভেঙে পড়ার সঙ্গে তিনি তুলনা করেছেন।

রাজ্যপালের কথায়, সংবিধানের ওই ধারা অনুযায়ী রাজ্য সরকার রাজ্যপালকে সুপারিশ পাঠাতে বাধ্য। এই সুপারিশগুলি পেশ করতে হয় বিধানসভায়। কিন্তু ২০১৪ সাল থেকেই কোনও সুপারিশ পাঠানো হয়নি। অর্থাৎ তাঁর পূর্বসূরি কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর কাছেও কোনও সুপারিশ পৌঁছয়নি বলে দাবি করেছেন ধনকড়। এই প্রসঙ্গে তোপ দেগে বলেছেন, রাজ্যের সাংবিধানিক পরিকাঠামো ভেঙে পড়েছে। এর আগে তিনি রাজ্যের বিজনেস সামিট নিয়ে কিছু প্রশ্ন তুলেছিলেন। যদিও তাতে তেমন ‘ঝাঁঝ’ ছিল না বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। তবে এবার তিনি গুরুতর অভিযোগ করলেন। এর আগে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়েও যথেষ্ট সরব ছিলেন তিনি। ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের দেখতে পর্যন্ত গিয়েছিলেন একাধিক জেলায়। এরপর ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে হাইকোর্ট রাজ্যকে ভর্ৎসনা করে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়ার পরেও রাজ্যপাল আশ্চর্যজনকভাবে নীরব অবস্থান নিয়েছিলেন। যে ঘটনা অনেককেই অবাক করেছিল। রবিবার ফের একবার রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হলেন তিনি।

Related Articles

Back to top button
Close