fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পরলৌকিক ক্রিয়ার বরাদ্দ অর্থে ১৫০০ দুঃস্থের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন পরিজনরা

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: প্রয়াত পিতার বাৎসরিক পরলৌকিক ক্রিয়া সম্পাদনের দিনে এক মানবিক দৃষ্টান্ত গড়লেন সন্তান ও পরিজনরা।লকডাউনে সামিল দুঃস্থদের মুখ চেয়ে তারা পরিবারের প্রিয়জনের বাৎসরিক পরলৌকিক ক্রিয়ায় বাতিল করে দেন ভোজের আয়োজন। সেই অর্থে দেড় হাজার দুঃস্থ পরিবারের হাতে বুধবার খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন সন্তান ও পরিজনরা। পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের এরুয়ার পঞ্চায়েতের রামপুর গ্রামের দাশগুপ্ত পরিবারের সদস্যদের এমন মহানুভবতার তারিফ করেছেন আপামর ভাতারবাসী।

দাশগুপ্ত পরিবারের সদস্য বৈদ্যনাথ গুপ্ত এদিন বলেন, গত বছর আজকের দিনে তাঁর দাদা শিব দাশগুপ্ত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। বুধবার ছিল প্রয়াত দাদার বাৎসরিক কাজ। দেশজুড়ে লকডাউন চলাকালীন সময়ে যেহেতু প্রয়াত দাদার বাৎসরিক পরলৌকিক কাজের দিন নির্দিষ্ট হয়েছে তাই আত্মীয় পরিজনদের নিয়ে ভোজের আয়োজন বাতিল করে দেওয়া হয়।

সেই বরাদ্দ অর্থে লকডাউনে সামিল এলাকার দুঃস্থদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় পরিবারের তরফে। এদিন শুধুমাত্র ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে শিববাবুর পরলৌকিক ক্রিয়াকর্ম সম্পাদন করা হয়। এরপর শিববাবুর সন্তান সহ পরিবারের সবাই মিলে এলাকার রামপুর, মাডারডিহি, আওগ্রাম ও চাদরা গ্রামের প্রায় দেড় হাজার দুঃস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন।

ভাতার থানার ওসি প্রণব বন্দ্যোপাধ্যায়, স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য কার্তিক বাগদি সহ এলাকার সকলেই দাশগুপ্ত পরিবারের এমন মানবিক কাজের প্রশংসা করেছেন।

Related Articles

Back to top button
Close