fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ভগৎ সিং মোড় থেকে ট্রাক্টরের লাইন, ভারত বনধের সমর্থনে মহামিছিল আসানসোলে

শুভেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়, আসানসোল:  কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে দিল্লিতে কৃষকদের আন্দোলন ও কৃষক সংগঠনগুলির ডাকা মঙ্গলবারের ভারত বনধের সমর্থনে সোমবার দুপুরে আসানসোলের পোলো ময়দান থেকে এক বিশাল মিছিল করেন শিখ সম্প্রদায়ের পুরুষ ও মহিলারা। সেই মিছিল বার্ণপুর রোড ও জিটি রোডের ভগৎ সিং মোড় হয়ে আসানসোলের কন্যাপুরে পশ্চিম বর্ধমান জেলার জেলাশাসকের কার্যালয়ে আসে। এই মিছিলের উদ্যোক্তা ছিল সেন্ট্রাল গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধক কমিটি, আসানসোল ও বার্নপুর গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধক কমিটি। এছাড়াও শিল্পাঞ্চলের চিত্তরঞ্জন থেকে শুরু করে রানিগঞ্জ পর্যন্ত সমস্ত গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধন কমিটির  সদস্যরাও মিছিলে যোগ দেন। মিছিলে ট্রাক্টর ছাড়াও মোটরবাইক ছিলো। মিছিলে বিশাল  সংখ্যায় মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

কোনও একটি নির্দিষ্ট দাবিতে দিল্লিতে আন্দোলনকে কেন্দ্র করে এত বড় মিছিল আসানসোল শিল্পাঞ্চলে এই যাবৎকালে দেখা যায় নি। জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি নিজে তার দফতর ছেড়ে জেলাশাসক অফিসের প্রধান গেটের কাছে চলে আসেন। পরে তিনি  মিছিলের উদ্যোক্তাদের থেকে স্মারকলিপি নেন। জেলাশাসক তাদের  জানান, এই স্মারকলিপি তিনি এদিনই নির্দিষ্ট জায়গায় পাঠিয়ে দেবেন। সেন্ট্রাল গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধক কমিটির সভাপতি তেজেন্দর  সিং ও আসানসোল গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধ কমিটির সভাপতি অমরজিৎ সিং বলেন,  পাঞ্জাব সহ বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকরা যেভাবে এই আন্দোলন করছেন, তাকে আমরা সমর্থন জানাচ্ছি। আমরা চাই নরেন্দ্র মোদি সরকার তিনটি আইন তুলে নিক।

বাংলার সহ দেশের বেশ কিছু রাজ্যে সরকারও এই আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে। আমরা আমাদের সব সদস্যদের বলেছি যাদের ব্যবসা ও দোকান  আছে তারা মঙ্গলবার সেগুলি বন্ধ রেখে ভারত বনধকে সমর্থন করুন। কিন্তু আসানসোল সহ রাজ্যে পশ্চিমবঙ্গে তারা জোর করে কোন বনধ পালন  করবেন না। এই মিছিলে থাকা চিত্তরঞ্জন মিহিজাম গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধ কমিটির সভাপতি সুরিন্দর সিং জানান,  মঙ্গলবার চিত্তরঞ্জনের সমস্ত দোকান বাজার বন্ধ রাখা হবে।

অন্যদিকে,  সিপিআইএমএলের পক্ষ থেকে সোমবার বিকেলে রুপনারায়নপুরে একটি সভা করা হয়। একইভাবে আসানসোলে একাধিক  রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে মঙ্গলবারের বনধের সমর্থনে প্রচার করা হয়।

সিপিআইয়ের শ্রমিক সংগঠন এআইটিইউসির রাজ্য সভাপতি তথা প্রাক্তন সাংসদ  রামচন্দ্র সিং এদিন বলেন, বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের যৌথ মঞ্চ জে-এ-ক বা  জয়েন্ট একশান কমিটি মঙ্গলবারের বনধকে সমর্থন করছে।

Related Articles

Back to top button
Close