fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তেল মিলে ক্ষমতার দখলদালি নিয়ে গলসিতে মারপিট, বোমাবাজি

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান:  তেল মিলে ক্ষমতার দখলদারি নিয়ে মারপিটে জড়ালো তৃণমূলের দুই গোষ্ঠী। চলল বোমাবাজি। এই মারপিট ও বোমাবাজির ঘটনা ঘিরে শুক্রবার সকাল থেকে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে  পূর্ব বর্ধমানের গলসির সিংপুর গ্রাম। খবর পেয়ে গলসি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। শুরু হয়েছে পুলিশী ধরপাকড়।

সিংপুর গ্রামের বাসিন্দাদের কথায় জানা গিয়েছে, গ্রামের কাছে ভাসাপুল মোড়ে বেসরকারি  রাইস ব্রান তেলের মিল আছে। ষেখানে সিংপুর গ্রামের বহু মানুষ শ্রমিকের কাজ করেন। মিলের শ্রমিকদের পুজোর বোনাসকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার ঝামেলা চলাকালীন একজনকে মারধর করা হয়। ঘটনার পর ওইদিন জেলার তৃণমূল নেতৃত্ব আলোচনায় বসেন শ্রমিক ও মালিক পক্ষকে নিয়ে। ওই সময়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে  শ্রমিকরা। এই ঘটনা নিয়ে এদিন সকালে আচমকা গ্রামের তৃণমূল নেতা হাসু মণ্ডল ও বকুল শেখের গোষ্ঠীর লোকজন গ্রামে বোমাবাজি শুরু করে বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন- কোজাগরীর আকাশে এবার বিরলতম ‘ ব্লুমুন’

পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। বোমাবাজির পর থেকে থমথমে হয়ে রয়েছে গোটা গ্রাম। তারপর থেকে পুলিশি ধরপাকড়ের ভয়ে গোটা গ্রাম পুরুষ শুন্য হয়ে যায়। বেশ কয়েকজনকে পুলিশ আটক করেছে। গ্রামে জারি রয়েছে পুলিশ টহল।

গলসির তৃণমূল নেতৃত্ব যদিও এদিনের ঘটনাকে দলের গোষ্ঠীদন্দ বলে মানতে নারাজ। তাঁদের বক্তব্য, যা ঘটেছে তা আসলে বোনাস নিয়ে মিল মালিকের সঙ্গে শ্রমিকদের ঝামেলা। এর সঙ্গে দলের কোন সম্পর্ক নেই।

জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সহসভাপতি জাকির হোসেন জানিয়েছেন, বোনাস সহ বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে মালিকের সঙ্গে শ্রমিকদের গণ্ডগোল হয়েছে। জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি ইফতিকার আহম্মদ ও তৃণমূল নেতা খোকন দাস বিষয়টি মীমাংসা করতে কারখানায় গেলে কিছু বহিরাগত লোকজন অশান্তি সৃষ্টি করে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close