fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

হেমতাবাদের ঘটনা নিয়ে ট্রাম্পের কাছেও যেতে পারে বিজেপি, তোপ ফিরহাদের

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: ‘রাষ্ট্রপতি কেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছেও যেতে পারেন বিজেপি। কিন্তু
মমতা বন্দ্যো পাধ্যায় প্রশাসন অনেক বেশি ততপর। অতিতে তার নজির মিলেছে।’ তোপ দাগলেন পুরমন্ত্রী তথা পুর প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম।
মঙ্গলবার পুরসভায় সাংবাদিক দের মুখোমুখি হয়ে তিনি বিজেপির হেমতাবাদ কাণ্ডে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কভিড এর সঙ্গে রাজ্য বিজেপির সক্ষাত প্রসঙ্গে এ কথা বলেন ফিরহাদ। তিনি বলেন, ‘হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যু আত্মহত্যার কারণেই হয়েছে বলে জানানো হয়েছে ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে। কিন্তু তা সত্বেও এই মৃত্যুকে সাধারণ আত্মহত্যা বলে মানতে নারাজ বঙ্গ বিজেপি। তাদের মতে খুন করা হয়েছে ওই বিধায়ককে। এদিকে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট কে মানতে না চালায় কার্যত চিকিৎসকদের অপমান করা হচ্ছে বলেই মনে করেছেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তার মতে, “মরা ধরার রাজনীতি করছে বিজেপি।’
সোমবার সকালে বিন্দোল গ্রাম পঞ্চায়েতের বালিয়াদিঘি মোড় এলাকায় একটি মোবাইল ফোনের দোকানের বারান্দা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় দিনাজপুরের হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায় (৬৫) দেহ। যা নিয়ে উত্তাল হয়েছে রাজ্য রাজনীতি। বিধায়কের রহস্য-মৃত্যুর ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য প্রশাসন। মঙ্গলবার নবান্ন থেকে ময়না তদন্তের রিপোর্ট বিস্তারিত জানিয়ে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন এই বিষয়ে স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সাথে তদন্ত করা হবে।
এর পরেই পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানান, “বিধায়কের মৃত্যুর কারণ হিসেবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এসেছে সেখানে পরিষ্কারভাবে বলা হয়েছে ঘটনাটি আত্মহত্যা। তারপরেও বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুকে খুন বলে উল্লেখ করছে। এতে রাজ্যের চিকিৎসকদের অপমান করা হচ্ছে। একইসঙ্গে ঘটনাটিতে সিবিআই তদন্তের দাবি তুলে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনকে অপমান করা হচ্ছে। মরা ধরার রাজনীতি করছে বিজেপি। এর আগেও এমনটা করা হয়েছিল বহু ক্ষেত্রেই।”
যদিও মৃত বিধায়ক কোন দলে ছিলেন তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে টানাপোড়েনের রাজনীতি। একদিকে বাম-কংগ্রে দাবি করছে মৃত বিধায়ক দেবেন্দ্র নাথ রায় বামকং জোটের বিধায়ক ছিলেন। স্পিকারের কাছে তিনি ইস্তফা জমা দিলেও তা গৃহীত হয়নি বলে দাবি করা হয় জোটের পক্ষ থেকে। তবে মৃত বিধায়ক যে দলেরই হোক কিনা এই গোটা ঘটনার নেপথ্যে রাজনীতি করছে বিজেপি, এমনটাই দাবি করেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

Related Articles

Back to top button
Close