fbpx
কলকাতাহেডলাইন

দিলীপ ঘোষ নয়, ক্যাগের স্বীকৃতি যথেষ্ট: ফিরহাদ

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: ‘রাজ্যের জন্য ক্যাগের স্বীকৃতি যথেষ্ট। দিলীপ ঘোষের স্বীকৃতির প্রয়োজন নেই।’ তোপ দাগলেন পুরমন্ত্রী তথা পুর প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম।
শনিবার কলকাতা পুরসভায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয় পশ্চিমবঙ্গের হিসাবরক্ষণ সম্পর্কে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানালেন ফিরহাদ। তিনি বলেন, ‘ক্যাগ আমাদের দরাজ হস্তে স্বীকৃতি দিয়েছে সারাদেশের নিরিখে পশ্চিমবঙ্গ একমাত্র রাজ্য যারা হিসাব নিকাশ স্বচ্ছতার প্রতীক।’
সম্প্রতি ক্যাগের এক বিশেষ প্রতিনিধি দল এ রাজ্যের হিসেব-নিকেশ পরীক্ষা করতে এসেছিল। তারা রাজ্যের হিসেব নিকেশ পরীক্ষা করে ক্লিন চিট দিয়েছিল। এদিন ফিরহাদ কৃষি বিল নিয়েও দিলীপ ঘোষকে একহাত নিলেন। অন্যদিকে পুলিশ সম্পর্কে দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানান।
এ রাজ্যের হিসেব-নিকেশে অনেক গন্ডগোল আছে বলে মন্তব্য করেছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কিন্তু কেন্দ্রীয় হিসাবরক্ষণ সংস্থা ক্যাগের রিপোর্টের পর দিলীপ ঘোষকে পাল্টা নিশানা করলেন ফিরহাদ। তিনি বলেন, ‘উনি কি চাটার্ড একাউন্টেন্ট পাস করেছেন? নাকি অ্যাকাউন্টসের বিশেষজ্ঞ। যেখানে ক্যাগ সার্টিফিকেট দিচ্ছে, যারা সারা দেশে হিসেব রক্ষা করে এইরকম এক কেন্দ্রীয় সংস্থা স্বীকৃতি দিচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গের হিসেব ভারতের মধ্যে সবথেকে স্বচ্ছ। সেটা নিয়ে ভুলভাল বলছেন। যদি গায়ের জোরে জোর জবরদস্তি বলেন। তবে সেটা কিছু বলার নেই।’
অন্যদিকে রাজ্যসভায় পাস হয়ে গিয়েছে কৃষিবিল। বিরোধীদের পরিভাষায় সেই বিল কে ঘিরে দেশজুড়ে কৃষক আন্দোলনের রূপ নিয়েছে। যদিও কেন্দ্রের বিজেপি সরকার এ মনটা মানতে নারাজ তাদের মতে নতুন এই কৃষিবিদ কৃষকদের সহায়ক। তাই বিলের সমর্থনে রাজ্য জুড়ে চলছে বিজেপির প্রচার অভিযান।
এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন, ‘দিলীপ দার শিক্ষাগত যোগ্যতা আমার জানা নেই। কিন্তু পার্লামেন্টের মেম্বার হওয়ার দরুন বিলটা পরে কথা বলুক। ধীরে ধীরে ভারতবর্ষ কর্পোরেট ধাঁচে চলে যাচ্ছে। যেখানে চাষীদের নিজেদের জমির অধিকার থেকে বঞ্চিত হতে হবে। আস্তে আস্তে বড় হাউসগুলো ফোরের কাজ করবে। চাষীদের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের কথা কোথাও উল্লেখ নেই বিলে। না জেনে কথা বলা আর মিথ্যে বলা দুটোই  সমান।’

Related Articles

Back to top button
Close