fbpx
কলকাতাহেডলাইন

নতুন মাঝেরহাট ব্রিজ পরিদর্শনে গিয়ে উৎফুল্ল পুরমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছর শেষের দিকে চালু হয়ে যাবে মাঝের হাট ব্রিজ। মঙ্গলবার এই নব নির্মিত ব্রিজ পরিদর্শনে যান পুর মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। দ্বিতীয় হুগলী সেতুর আদলে তৈরি এই ব্রিজ দেখে কার্যত উৎফুল্ল হয়ে ওঠেন তিনি।
শহরবাসী আশা করেছিল কালী পুজোর আগেই হয়তো ফের চালু হতে পারে মাঝেরহাট ব্রিজ। কিন্তু সেই আশায় পরল জল। কালীপুজোর আগে চালু হচ্ছে না মাঝেরহাট ব্রিজ। তবে জোরকদমে চলছে মাজেরহাট ব্রিজ তৈরির কাজ। কারণ মাঝেরহাট ব্রিজের নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে।
এদিন ব্রিজ পরিদর্শন করে ফিরহাদ হাকিম জানান, “যখন মাঝের হাট ব্রিজ ভেঙে গিয়ে ছিল আমি সেখানে ছিলাম । চারিদিক স্তব্ধ , সে এক অন্ধকার ময় অভিশপ্ত দিন।আজ আমি সেই পুনঃ নির্মিত মাঝের হাট ব্রিজ কে দেখে আনন্দে উৎফুল্ল । আমরা সবাই অপেক্ষা করে আছি আমাদের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত দিয়ে এই পুনঃ নির্মিত ব্রীজের শুভ সূচনার”।
২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর বিকেল পৌনে পাঁচটা নাগাদ মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ে। এরপরই পূর্ত দফতরকে নতুন উড়ালপুল তৈরির দায়িত্ব দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু রেলের অনুমতির জন্য কাজ শুরু করতেই লেগে যায় নয় মাস। গত মার্চ মাস থেকে করোনা পরিস্থিতির কারণে তিনমাসেরও বেশি সময় ধরে নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে পড়েছিল। পরে কাজ চালু হয়। এখন সেই সেতু কার্যত নির্মাণের পরিসমাপ্তির পরে উদ্বোধনের প্রহর গুণছে শহরবাসী।
২৫০ কোটি টাকা খরচ করে ৬৫০ মিটার দীর্ঘ এই নতুন মাজেরহাট ব্রিজ তৈরি করা হয়েছে। ব্রিজটি চার লেনের। নতুন এই ব্রিজের ২২৭ মিটার অংশ কেবলের মাধ্যমে ঝুলন্ত অবস্থায় তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০০ মিটার ব্রিজ রেলের লাইনের উপরে ঝুলছে। রেল লাইনের মাঝখানের থাকা আগেকার সেতুর রয়ে যাওয়া তিনটি পিলার খুব শীঘ্রই ভেঙে ফেলা হবে বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close