fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় প্রতিবেশী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত ১

মিল্টন পাল,মালদা: জমি বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে সংর্ঘষ দুই প্রতিবেশী। সংর্ঘষের জেরে চললো চার রাউন্ড গুলি। গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল এক জনের। বাঁশের আঘাতে আহত তিনজন। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার মালদার চাঁচোল থানার চন্দ্রপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত যদুপুর গ্রামে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে চাঁচোল থানার পুলিশ। এমন ঘটনায় উত্তপ্ত এলাকা। আহতদের চাঁচোল সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,মৃতের নাম মেমরেজ আলী(৪২)।এদিন কাকভোরে মালদার চাঁচোল থানার চাঁচল ২ ব্লকের চন্দ্রপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের যদুপুর গ্রামের বাসিন্দা মেমরেজ আলী নিজের বাড়ির সামনে বেড়া দিচ্ছিলেন।সে সময় তারই প্রতিবেশী সুখবার আলী ও বাবলু আলীরা মেমরেজ আলীকে বেড়া দিতে বাধা দেয়। মেমরেজ আলী আপত্তি অস্বীকার করে। শুরু হয় তাদের মধ্যে বচসা। তখন সুখবার আলীর ছেলে বাবলু আলি নিজের বাড়ি থেকে পিস্তল নিয়ে এসে মেমরেজ আলীর দিকে লক্ষ করে চার রাউন্ড গুলি চালায়। এক রাউন্ড গুলি মমরেজ আলীর বুকে লাগে। ঘটনা দেখতে পেয়ে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বাঁচাতে আসলে সুখবার আলী, মমরেজ আলীর কাকা মহসীন আলীকে বাঁশ দিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয়।এরপরই দুই পক্ষের মধ্যে শুরু হয়ে যায় সংর্ঘস।

ঘটনায় আহত হয় চার জন।আহত চারজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁচোল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে আসে। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ মেমরেজ আলীর অবস্থা সঙ্কটজনক হওয়ায় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পথে মমরেজ আলীর মৃত্যু হয়। বাকীরা চাঁচল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনার অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চাঁচোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
পুলিশ সুত্রে আরও জানা গিয়েছে,ঘটনার অভিযোগের ভিত্তিতে সুখবীর আলী ও বাবলু আলীকে গ্রেপ্তার করেছে চাচল থানার পুলিশ।মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close