fbpx
অন্যান্যঅফবিটকলকাতাহেডলাইন

প্রথমবার অনলাইনে গণপতি আরাধনা, থিম ‘গৃহকোণে বিনায়ক’

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: করোনাসুরের দাপটে সিদ্ধিদাতা গণেশও কিছুটা ব্যাকফুটে। তবে চিন্তার কিছু নেই বিঘ্ননাশক গণপতি আসছেনই। তবে একটু অন‌ভাবে। এই শহরে প্রথমবার ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মে আবির্ভাব হবে গণপতি বাপ্পার। সল্টলেক যুবক সংঘের এবারের পুজোর থিম ‘ গৃহকোণে বিনায়ক।’ শুক্রবার অনলাইনে সাংবাদিক সম্মেলন করে এখবর দিলেন ক্লাবের সভাপতি অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়।

 

তিনি বলেন, ‘ আগামী ২২ আগস্ট গণেশ পুজো। আমাদের পুজোর উদ্বোধন,দর্শন, আরতি কিংবা পুষ্পাঞ্জলি সবই হবে ক্লাবের ফেসবুক পেজে। অর্থাৎ পুরোটাই ডিজিট্যাল। যাঁরা পুজো দেবেন তাঁরা নাম ও গোত্র দিয়ে আমাদের পেজে পাঠিয়ে দিলে আমরা পুজো দিয়ে তাঁদের বাড়িতে প্রসাদ পাঠিয়ে দেবো।’
এগারো বছরের পা দেওয়া এবারের পুজোর থিম ‘ গৃহকোণে বিনায়ক।’ শহরের অন্যতম পুরনো এই গণেশ পুজোয় প্রতি বছরই নতুন নতুন থিম থাকে। যেমন গতবছরের থিম ছিল হাজার বছরের পুরনো গণেশ মূর্তি।

 

অনিন্দ্য জানালেন, ‘ করোনা ভাইরাসের জন‌্য আমাদের সবাইকে সব বিধিনিষেধ মেনে চলতে হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা, প্রতি মুহূর্তে স্যানিটাইজ করা,এবার প্রসাদে ফুল ব্যবহার করা যাচ্ছে না। তবে ডিজিট্যাল মাধ্যমে পুজোর জন্য বিশ্বের সব প্রান্তেই পৌঁছে যাবে আমাদের পুজো। সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের বহু শুভাকাঙ্ক্ষী যাঁরা দেশ বিদেশের নানারকম প্রান্তে ছড়িয়ে রয়েছেন আমাদের পুজো দেখতে পাবেন।’

 

গণপতি বাপ্পা মোরিয়া, মঙ্গলমূর্তি মোরিয়া। বিঘ্ননাশক গণপতির আশীর্বাদে করোনাসুরকে হারিয়ে আমরা নিশ্চয়ই খুশির পুজোয় মেতে উঠবো। মঙ্গল শঙ্খের, ঢাকের বাদ্যিতে বেজে উঠবে প্রাণভরা উৎসবের বোল।

Related Articles

Back to top button
Close