fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মাছ কিনতে গিয়ে দুর্গাপুরে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ মাছ বিক্রেতা, উদ্বিগ্ন পরিবার

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: মাছ কিনতে গিয়ে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে গেলেন এক মাছ বিক্রেতা। সাতদিন পরও হদিশ না মেলায় উদ্বিগ্ন পরিবারের লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুর পুরসভার ১ নং ওয়ার্ডের বিজুপাড়া এলাকায়। নিখোঁজ মাছ বিক্রেতা বাপ্পা ডোম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তাঁর বাড়ি ঝাড়খন্ডে। বিজুপাড়া এলাকায় শ্বশুরবাড়ীতে থাকে। সাইকেলে করে মাছ বিক্রি করা ছিল তাঁর পেশা। পরিবারে তাঁর স্ত্রী পুর্নিমা ডোম এক কন্যাসন্তান রয়েছে। তাঁর স্ত্রী পুর্নিমা দেবী জানান, “প্রতিদিন সকালে বেনাচিতি মাছের আড়ৎ থেকে মাছ কিনে সাইকেলে করে বিক্রি করত। বেলা সাড়ে ১১ টার মধ্যে বাড়ী ফিরত। গত ১৭ জুলাই সকালে অন্যান্য দিনের মত মাছ কিনতে বের হয়। সাইকেল, মাছের ট্রে, বটি সবই নিয়ে বেরিয়েছে। দুপুর দেড়টা পর্যন্ত না ফেরায় ফোন করি। ফোন সুইচ অফ। তারপরই খোঁজাখুজি শুরু করি। পুলিশে অভিযোগ জানিয়ে এসেছি।”

তিনি আরও জানান, “বাড়িতে সেরকম কোনও ঝগড়া অশান্তিও হয়নি। কেন কি কারণে নিখোঁজ হল বুঝতে পারছি না। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ছিল। সংসারে অনটন নেমে এসেছে৷ ” এদিকে খবর পেয়ে ঝাড়খন্ড থেকে তার মা-বাবা  বিজুপাড়ার বাড়ীতে এসেছে। সাতদিন পরও কোন হদিশ না পাওয়ায় পরিবারের লোকজন উদ্বিগ্ন। তার মা করুনা ডোম জানান, “ছেলে নিরিহ। কোন ঝামেলাতে থাকে না। লকডাউনের আগে নাতনিকে নিয়ে ঝাড়খন্ডের বাড়ীতে গিয়েছিল। কোথায় গেল কিছু বুঝতে পারছি না। আমরা দুঃশ্চিন্তায় রয়েছি।”

স্থানীয় কাউন্সিলার শীপ্রা সরকার জানান, ” ওই পরিবারে গিয়েছিলাম। ছেলেটি খুব ভাল মৃৎ শিল্পী। বাড়ীতে নিজের হাতে নানান ঠাকুরের মূর্তি তৈরী করেছে। পরিবারে খাদ্য সামগ্রী কিছু দিয়ে এসেছি।”  অন্যদিকে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

 

Related Articles

Back to top button
Close