fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ছবি তুলে ব্ল্যাকমেল এবং ছাত্রীর আত্মহত্যা কান্ডে অভিযুক্তের পাঁচ বছরের জেল

নিজস্ব সংবাদদাতা, বোলপুর: স্নানের ছবি তুলে ছাত্রীকে ব্ল্যাকমেল করে জোড় করে শারীরিক সম্পর্ক করা
এবং পরে ছাত্রীর আত্মহত্যা কান্ডে অভিযুক্ত শেখ হাফিজুলের পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিল বোলপুর
মহকুমা আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, রায়পুর-সুপুর গ্রামপঞ্চায়েতের সুপুর গ্রামের বাসিন্দা এক ছাত্রী ব্ল্যাকমেলিং
এর শিকার হন। তার পরিবারের অভিযোগ ছিল, ২০১৭ সালে সরকারের সাহায্যে তাদের একটি পাকা বাড়ি তৈরির
কাজ চলছিল। সেই সময় ওই পাকা বাড়ির পাশে একটি শৌচাগারে স্নান করতো ছাত্রীটি। কাজ করতে আসা
মিস্ত্রী শেখ হাফিজুল গোপনে মোবাইলে ছাত্রীর স্নান করারা ছবি তোলে, পরে তা দেখয়ে ছাত্রীকে
ব্ল্যাকমেলিং এর পাশাপাশি জোড় করে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে। বোলপুরে কলেজে পড়া ছাত্রী এই
ঘটনার পর ৯.১২.১৭ তারিখে ঘরের মধ্যে গায়ে আগুন দেয়। প্রথমে তাকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতাল পরে
বর্ধমান মেডিকেল কলেজ এবং পরিস্থিতির অবনতি হলে কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
প্রতিটি হাসপাতালে ছাত্রীটি গোপন জবানবন্দি দেয়।

 

পরে ১৭.১২.১৭ তারিখে ছাত্রীর দাদা গৌরাঙ্গ সরকার বোলপুর থানায় শেখ হাফিজুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ আইপিসি ৩৭৬,৩০৬ এবং ৫০৬ ধারায় অভিযোগ দায়ের করে হাফিজুলকে গ্রেফতার করে। কিন্তু হাফিজুলের মোবাইলটি উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। সরকারি আইনজীবি তপন দাস বলেন, অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ কল্লোল কুমার দাস অভিযুক্ত শেখ
হাফিজুলকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা করেন। অনাদাইয়ে আরও তিন মাস জেল
হেপাজতের নির্দেশ দেন।

Related Articles

Back to top button
Close