fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

করোনার প্রাথমিক উপসর্গ জ্বর নাও হতে পারে, জানাল এইমস

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার লক্ষণ সম্পর্কে সজাগ করল এইমস। এইমসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, করোনার প্রাথমিক লক্ষণ জ্বর হতে নাও পারে। অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে, প্রাথমিক উপসর্গ জ্বর ছাড়াও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বহু মানুষ।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ বা আইসিএমআরের জার্নালে প্রকাশিত দিল্লি ও হরিয়ানা এইমসের এক সমীক্ষায় এমন তথ্য মিলেছে, সেখানে দেখা গিয়েছে যে, ১০০ এর মধ্যে মাত্র ১৭ শতাংশের মধ্যে প্রাথমিক লক্ষণ ছিল জ্বর। এইমসের সমীক্ষা বলছে যেসব রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ৪৪ শতাংশই অ্যাসিম্পোম্যাটিক। যখন তাঁরা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন, সেভাবে কোনও লক্ষ্মণ তাঁদের মধ্যে দেখা যায়নি, বিশেষত জ্বর। তাই জ্বর যে করোনা আক্রান্তের প্রথম ও প্রধান লক্ষ্মণ একথা বলা যাবে না। এইমসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, করোনার প্রাথমিক লক্ষণ জ্বর ভেবে চিকিৎসা শুরু হলে অন্য গুরুত্বপূর্ণ রোগের চিকিৎসা বাদ পরতে পারে।

[আরও পড়ুন- অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণে ভূমি পূজনের জল গেল হুগলির ত্রিবেণী থেকে]

এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, আক্রান্তের ৪৪ শতাংশের মধ্যে করোনার সেভাবে কোনও লক্ষ্মণ দেখা যায়নি। ৩৪ শতাংশের ক্ষেত্রে কাশি ছিল, ১৭ শতাংশের ক্ষেত্রে জ্বর দেখা গিয়েছে। অন্যদিকে মাত্র দুই শতাংশ রোগির নাসারন্ধ্রে সমস্যা দেখা দিয়েছিল।

উল্লেখ্য, আগে বলা হয়েছিল যে, করোনার প্রাথমিক লক্ষ্মণ জ্বর, সর্দি, কাশি, গলাব্যথা, শ্বাসকষ্ট।  পরে জুন মাসে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের নয়া গাইড লাইনে করোনার প্রাথমিক লক্ষ্মণ জ্বর, সর্দি, কাশি, গলাব্যথা, শ্বাসকষ্টের সঙ্গে গন্ধ বা স্বাদ না পাওয়া, ডায়েরিয়া, গায়ে হাতে পায়ে ব্যথার মত লক্ষ্মণগুলিকেও তুলে ধরা হয়।

অন্যদিকে মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত এক তথ্যে জানানো হয়েছে যে, করোনা ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার পরেও ফের আক্রমণ করতে পারে এই ভাইরাস। মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত এক তথ্যে এমনটাই জানা যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, করোনা ভাইরাস থেকে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠার পরেও ফের নতুন করে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, কোনও ব্যক্তি প্রথমবার করোনা সংক্রামিত হলে ফের তাঁর আবার সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়। এক্ষেত্রে ত্রিশ দিন অথবা তার আরও পরে ফের করোনা টেস্ট করলে রক্তে করোনার জীবাণুর মিলবে।চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে, এই রোগের ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত করোনা থেকে পুরোপুরি নিস্তার পাওয়া সম্ভব নয়।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close