fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

খাদ্য বন্টনে দুর্নীতি, ক্যামেরাবন্দি করায় আক্রান্ত সাংবাদিক

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: বিনা মূল্যের চাল উপভোক্তাদের ৫ কেজি করে না দিয়ে ওজনে কম দিচ্ছিলেন রেশন ডিলার। চাল ওজনে কমদেবার ঘটনা ক্যামেরা বন্দি করায় রেশন ডিলার ও তার পেটুয়া লোকজনের হাতে আক্রান্ত হলেন সাংবাদিক । শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর থানার পাঁচড়া পঞ্চায়েতের চৌবেড়িয়া এলাকায়।এই ঘটনার জেরে এদিন চৌবেড়িয়া এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে জামালপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে । চাল কম দেবার ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জেলা প্রশাসন ওখাদ্য দপ্তর ।


গোটা রাজ্যে শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে উপভোক্তাদের বিনা মূল্যে ৫ কেজি করে চাল দেওয়া ।সেই চাল সংগ্রহ করতে এদিন সকাল থেকে চৌবেড়িয়ার বাসিন্দারা স্থানীয় সুবির নন্দির রেশন দোকানে হাজির হন।সুবির নন্দি আবার জামালপুর ব্লক এমআর ডিলার অ্যাসেসিয়েশনের সম্পাদক। তাঁর রেশন দোকানের এফ,পি,এস নম্বর ১৩৩৫০৫২০০০২৭।এদিন রেশন দোকান থেকে উপভোক্তাদের যে চাল দেওয়া হয় তা তাঁরা অন্যত্র ওজন করে দেখেন তাঁদের চাল ওজনে কম দেওয়া হয়েছে। যে পরিবারের উপভোক্তাদের ৩৫ কেজি চাল পাওনা তাদের কাউকে ৩০০ গ্রাম। আবার কাউকে কাউকে ১৭০ গ্রাম থেকে ২০০ গ্রাম পর্যন্ত ওজনে কম দিয়েছে রেশন ডিলার সুবির নন্দি বলে অভিযোগ ।এমন কারচুপি সামনে আসার পরেই প্রতারিত উপভোক্তাদের কয়েকজন জামালপুরের বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধি পার্থ বন্দ্যোপাধ্যায় কে জানায় । দ্রুত ওই রেশন দোকানে পৌছে গিয়ে সাংবাদিক পার্থ চাল ওজনে কম দেবার ঘটনার সবিস্তার ক্যামেরা বন্দি করে । কারচুপি ধরা পড়েযাবার পরেই রেশন দোকানদার সুবির নন্দি ও তাঁর ভাই মনে নন্দি তাঁদের পেটুয়া লোকজনকে নিয়ে সাংবাদিক পার্থর উপর চড়াও হয় । তাঁকে শারীরিক ভাবে নিগ্রহ করে তাঁর মোবাইল ও প্রেসকার্ড কেড়ে নেয়।এমনকি চাল ওজনে কমদেবার সমস্ত ভিডিও ডিলিট করে দেবার জন্য তারা পার্থর উপর চাপ সৃষ্টি করতে শুরু ।এই খবর পেয়ে অন্য সাংবাদিক ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে রেশন ডিলার ও তার দলবল পিছু হাটে । পরে চাল ওজনে কম দেবার কথা নিজের মুখে স্বীকার করেনেন ডিলার সুবির নন্দির ভাই মনে নন্দি ।


উপভোক্তারা অভিযোগ করেছেন প্রায় হাজার খানেক পরিবারকে চাল কম দিয়ে সেই চাল কালোবাজারি করাই ছিল রেশ ডিলার সুবির নন্দির মূল উদ্দেশ্য । এই ঘটনার জন্য প্রশাসনের শাস্তির কোপে পড়তে হবে বুঝতে পেরে ডিলার পাঁচড়া অঞ্চলের শাসক দলের নেতা প্রেমনাথ ঘোষালকে আশরে নামায় । ওই নেতা ও ডিলার পরে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে এই খবর না করার জন্য জন্য সাংবাদিকদের তোষামদ করা শুরু করেন । কোন সাংবাদিক সেই প্রলোভনের ফাঁদে পা না দিয়ে ওজনে কারচুপির সবিস্তার জেলা শাসক বিজয় ভারতি , জেলাপরিদ সভাধিপতি শম্পা ধারা এবং জেলা খাদ্য নিয়ামক আবির বালিকে জানিয়ে দেন। সাংবাদিকদের কাছ থেকে ঘটনার সবিস্তার জানার পরেই নড়ে চড়ে বসেছে প্রশাসন ।

অন্যদিকে এদিনই রেশন দোকানে বিক্ষোভের ঘটনা ঘটেছে জামালপুরের আবুজহাটি এলাকায়। রেশন দোকান থেকে পোকাধরা চাল দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে আবুজহাটির উপভোক্তারা রেশন দোকানে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন । পুলিশ সেখানে গিয়ে ক্ষোভ বিক্ষোভ সামাল দেয় ।এছাড়াও এদিন বেলায় বর্ধমান শহরের মেহেদিবাগান এলাকার এক রেশন ডিলারের বিরুদ্ধেও চাল ওজনে কমদেবার অভিযোগ তুলে স্বোচ্চার হন উপভোক্তারা।

সভাধিপতি শম্পা ধারা জানিয়েছেন, চৌবেড়িয় রেশন ডিলার অপরাধ করেছেন। প্রশাসনিক স্তরে তদন্ত শুরু হয়েছে । যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সভাধিপতি জানিয়েদেন । জেলা শাসক বিজয় ভারতিও তদন্তে আশ্বাস দিয়েছেন । জেলা খদ্য নিয়ামক আবির বালি বলেন , জামালপুর ব্লকের বিডিওকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে । রিপোর্ট খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। খাদ্য নিয়ামক একই সঙ্গে জানিয়েদেন ,
অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় ইতিমধ্যেই জেলার কালনা মহকুমার ৪জন ও বর্ধমান শহরের এক ডিলারকে শোকজ করা হয়েছে ।

Related Articles

Back to top button
Close