fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসায় কোয়ারেন্টাইনে হু প্রধান টেড্রস

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: এবার সেলফ কোয়ারেন্টাইনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ‘‌হু’–এর প্রধান প্রধান টেডরোজ আধানম ঘেব্রিয়েসুস । কোভিড -১৯ এ আক্রান্ত ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর যোগাযোগের পরে আইসোলেশনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তবে, নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, তার কোনও লক্ষণ এখনও দেখা যায়নি।টুইট করে নিজেই সেকথা জানান তিনি।

রবিবার রাতের দিকে ‌টুইট করে ‘‌হু’–এর প্রধান জানান, ‘‌‘একজন কোভিড–১৯ আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেছি আমি।‌ তবে সুস্থই রয়েছি। শরীরে কোনও উপসর্গও নেই। কিন্তু নিয়ম মেনে আগামী কয়েকদিন সেলফ কোয়ারেন্টাইনে থাকব। বাড়ি থেকেই কাজকর্ম সারব।’‌এখানেই শেষ নয়, টুইট করে প্রত্যেককে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথাও বলেন। তাঁর মতে, করোনা সংক্রমণের চেন ভাঙা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আর সেটা সম্ভব সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে। ‘‌হু’–এর প্রধান লেখেন, ‘‌‘আমাদের সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত। এভাবেই আমরা সংক্রমণের চেনটিকে ভাঙতে পারব, ভাইরাসকে হারাতে সক্ষম হব।‌’

হু-এর তরফে স্বাস্থ্যবিধিতে বলা হয়েছে, এই সময় তিনটি বিষয়ে সবার নজর রাখা উচিত। তা হল সবসময় মাস্ক পরে থাকা, কিছুক্ষণ অন্তর হাত ধোয়া ও নিজেদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। একমাত্র এভাবেই সংক্রমণের চেন ভাঙা সম্ভব বলে জানায় রাষ্ট্রপুঞ্জের এই স্বাস্থ্য বিষয়ক সংস্থা। যদিও আগে হু জানিয়েছিল শুধুমাত্র করোনা আক্রান্তরাই মাস্ক পরলে চলবে। কিন্তু পরে সেই দাবি থেকে সরে আসে তারা। বলা হয় সবাই মাস্ক পরলে এই সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যাবে।

আরও পড়ুন: ‘বরফ’ গলাতে নেপাল সফরে যাচ্ছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান নারাভানে

করোনা সংক্রমণের সেকেন্ড ওয়েভ শুরু হয়ে গিয়েছে ইউরোপে। জার্মানি, বেলজিয়াম, ফ্রান্স, তুরষ্ক সহ একাধিক দেশে করোনা সংক্রমণ নতুন করে বাড়তে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই ফ্রান্স, বেলজিয়াম নতুন করে লকডাউনের পথে হাঁটতে শুরু করেছে। করোনা সংক্রমণের সেকেন্ড ওয়েভ আরও মারাত্মক হবে বলে আগেই সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আগেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বিশ্ববাসীকে সতর্ক করে বলা হয়েছে শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করবে। প্রাথমিক পর্যায়ে তা হতে শুরু করে দিয়েছে ইউরোপের দেশগুলিতে। ইউরোপে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করায় আতঙ্কে রয়েছে এশিয়ার দেশগুলিও।

‌‌

Related Articles

Back to top button
Close