fbpx
দেশহেডলাইন

ভারতীয় অর্থনীতির উন্নয়ন ঘটাতে তিনটি ‘ওষুধ’-এর কথা বললেন মনমোহন সিং

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা বিশ্বে মারণ থাবা বসিয়েছে করোনা। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু ও সংক্রমণের সংখ্যা। এছাড়া এই ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিশ্বজুড়ে অর্থনীতি ধাক্কা খেয়েছে। ভারতীয় অর্থনীতিও তার ব্যতিক্রম নয়। বিশ্ব ব্যাঙ্ক, আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার এবং রেটিং সংস্থাগুলি অনুমান করছে ভারতের অর্থনীতির অভূতপূর্ব সংকোচন হতে চলেছে। তবে এহেন অবস্থাতেও অর্থনীতির উন্নতির জন্য কয়েকটা উপায় বললেন ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং।

এক সাক্ষাৎকারে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ বলেন, তিন ওষুধে সারতে পারে ঘরোয়া অর্থনীতির ব্যামো। সরকারকে ‘অবিলম্বে’ তিনটি পদক্ষেপ করতে হবে। প্রথমটি হল, মানুষের জীবন ও জীবিকা বাঁচাতে সরাসরি নগদে হস্তান্তর তথা ক্যাশ ট্রান্সফার করতে হবে। তার ফলে মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বাড়বে এবং বাজারে চাহিদা তৈরি হবে। দুনম্বর উপায় হল, ব্যবসার মূলধনের জন্য যোগান বাড়াতে হবে। আর তা করতে হবে সরকার পোষিত ক্রেডিট গ্যারান্টি প্রোগ্রামের মাধ্যমে। অর্থাৎ ব্যবসায় মূলধনের যোগান বাড়াতে সরকারকেই সুনিশ্চিত ব্যবস্থা নিতে হবে।

আরও পড়ুন: বেইরুট বিস্ফোরণের থেকে শিক্ষা! চেন্নাই থেকে সরানো হল বিপুল মজুত রাসায়নিক

তৃতীয়টি হল, অর্থনৈতিক ক্ষেত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে স্বায়ত্বশাসন দিতে হবে। অর্থাৎ তারা নিজেদের বিবেচনা মতো পদক্ষেপ করবে। সরকার নাক গলালে চলবে না। তিনি আরও বলেন “আমি মন্দা শব্দটি ব্যবহার করতে চাই না। ওটা শুনতে রুক্ষ লাগে। বরং আমি বলব, অর্থনৈতিক মন্দগতি অনিবার্য এবং তা দীর্ঘ সময় ধরে চলবে।”

                         আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়

যখন তাঁকে প্রশ্ন করা হয় টাকা ছাপানো শেষ বিকল্প হতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তরে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বলেন, “অর্থনৈতিক ঘাটতি মেটাতে এ ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা থেকে ভারত অনেক আগেই সরে এসেছে। অর্থনৈতিক শৃঙ্খলা কায়েম করা হয়েছে। সরকারের থেকে প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে আলাদা করা হয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে।”

Related Articles

Back to top button
Close