fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

৯০ কিমি বাইকে এসে চণ্ডীপুরে রক্ত দিলেন দাসপুরের চার যুবক

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক: সামনেই শারদোৎসব। রক্তের সংকট মহামারী আকার নেবে। এমতবস্থায় সেই মহাসংকটের প্রারম্ভে আবারও সহনশীলতা এবং সমাজ সচেতনতার নজির দেখালো চণ্ডীপুর ব্লকের ‘বিবেকানন্দ লোকশিক্ষা মন্দির’। আর সেখানেই আরও বিরল দৃষ্টান্ত তুলে ধরলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরের চার যুবক।

সুদূর পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুর থেকে ৯০ কিলোমিটার বাইক চালিয়ে এসে চণ্ডীপুরের শিবিরে রক্তদান করলেন এই যুবকেরা। এঁরা সৌম্য দত্ত, সূর্যশেখর পাণ্ডা, জয় ব্যানার্জি এবং সুশমন বেরা। এঁদের কথায়, রক্তদানের কোনও স্থানভেদ নেই। জাতি ধর্মও বিবেচিত হয় না কখনও। উৎসবের প্রাক মুহূর্তে রক্তের আকাল মেটাতে রক্তদান করে ভালো লাগছে।

প্রতি বছরের মত এ বছরও আয়োজন করল রক্তদান শিবির। অতিমারীর আবহে যাবতীয় সাবধানতা অবলম্বন করে এই শিবিরের আয়োজন করা হয়। নন্দীগ্রাম ব্লাড ব্যাংকের সহযোগিতায় আয়োজিত হয়। শিবিবের উদ্বোধন করেন চন্ডীপুর ব্লকের সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক অভিষেক দাস। উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় শ্যামসুন্দরপুর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক অরুণাংশু প্রধান, গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য প্রণব শংকর করণ প্রমুখ।

আরও পড়ুন:ভুয়ো নয়, পশ্চিমবঙ্গে প্রকৃত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা বিজেপিই করবে

এই শিবিরে স্থানীয় স্বাস্থ্যকর্মী, শিক্ষক শিক্ষিকা, পটশিল্পী সহ মোট ৭০ জন রক্তদান করেন। সংস্থার সম্পাদক দিব্যেন্দু জানা বলেন, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হিসাবে প্রতিবারের মত রক্তদান শিবির আয়োজন করা আমাদের একটা কর্তব্যের মধ্যে পড়ে। তবে এ বছর সময়টা অন্যরকম। তাই আশংকা ছিল রক্তদাতা পাব কিনা। শেষ অবধি এত মানুষ তাঁদের সহৃদয়তার পরিচয় দিয়ে এগিয়ে আসবেন, ভাবতে পারিনি।

Related Articles

Back to top button
Close